মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের সঙ্গে বামেদের লড়াইয়ে বামেদের সেনানায়ক ছিলেন তিন। তাঁর 'হয়ে যাক এস্পার ওস্পার ভঙ্গি', কড়া ভাষার ভোক্যাল টনিক বহু দলীয় কর্মীকে এক সময়ে চাঙ্গা করেছেন।  বহুদিন অসুস্থতার জন্যে অন্তরালে ছিলেন। এবার ফের কামব্যাক হল সিপিএম নেতা গৌতম দেবের। ফিরেই চেনা ভঙ্গিতে ছক্কা।  টেস্ট ওয়ান ডে নয়, একেবারে টি টোয়েন্টি ব্যাট চালালেন গৌতম দেব। বললেন, 'মমতাকে সমর্থন করতে পারি, তবে শর্ত মানতে হবে।'

খুব বেশি দিনের ঘটনা নয়।  অনেকেরই মনে রয়েছে, গৌতম উবাচ। হুঙ্কারের সুরে মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে গৌতম দেব বলেছিলেন মমতাকে আলিমুদ্দিনে আসতেই হবে। তারপর গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে। বিজেপির আগ্রাসণ ঘাম ছুটিয়েছে গোটা তৃণমূল দলের। এই অবস্থায় নৈরাজ্য রুখতে মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি বিধানসভা থেকে বার্তা দিয়েছেন সম্প্রীতির। আব্দুল মান্নান, সুজন চক্রবর্তীর নাম করে তিনি বলেন মান্নান ভাই চলুন একসঙ্গে লড়ি। বৃহত্তর স্বার্থে আমাদের একসঙ্গে আসা দরকার।'

আরও পড়ুনঃ 'বাংলা' নামে না কেন্দ্রর, তিন বছর পরেও খালি হাতেই ফিরছে রাজ্য
সিপিএম-কে অশালীন ভাষায় আক্রমণ, ব্রাত্য বসুর মন্তব্যে ছিছিক্কার সর্বত্র

অনেকেই বলছিলেন এই বার্তা ছিল জোটের ইঙ্গিত। বেশ কিছু সংবাদপত্র এই মর্মে শিরোনামও করে। এই নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের অপব্যাখ্যা নিয়ে সরব হয়েছিল তৃণমূল সমর্থকরা। এই সময়ে সুজন চক্রবর্তী সাফ জানান, এই ধরনের কোনও বিষয়ে তাঁদের কোনও সায় নেই। 
অথচ এদিন ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে মন্তব্য করলে গৌতম দেব। এদিন তিনি বলেন, মমতাকে এখনও অনেক কিছু করতে হবে। আমাদের শর্ত মানলে তবেই তাঁকে সহযোগিতা করা সম্ভব। গৌতম দেবের এই মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। দীর্ঘদিন কোমর ভেঙে  গৃহবন্দি ছিলেন গৌতম। সুস্থ হতে না হতেই তাঁর এই উবাচ ঘিরে প্রতিক্রিয়া আসছে নানা মহল থেকে। সকলেই আপাতত অপেক্ষমান মুখ্যমন্ত্রী কী বলেন তা শোনার অপেক্ষায়।