মে মাসের শুরুতেই ধেয়ে আসছে ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় '‌আমফান'। যার জন্য় সতর্ক করা হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে। দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর এবং পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর আন্দামান সাগরে অনির্দিষ্টকালের জন্য মৎস্যজীবীদের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। কলকাতার আকাশ  শুক্রবার সারাদিনই মেঘলা রয়েছে। সূর্যোদয় মেঘের আড়ালে হওয়ায় দেখা পায়নি শহরবাসী। হাওয়া অফিস জানিয়েছে,  শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম।শুক্রবার বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে। দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদ ও পশ্চিম বর্ধমান সহ বেশ কিছু জেলায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে । শনিবারেও ঝড়-বৃষ্টি চলবে দক্ষিণবঙ্গে।

 

 

আরও পড়ুন, মধ্যরাতে রাজ্য় পুলিশে ৪০ অফিসারের রদ বদল,হঠাৎ বদলি নিয়ে জল্পনা


হাওয়া অফিস জানিয়েছে,  শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৮৯ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৫ শতাংশ। শুক্রবার  এই মুহূর্তে শহর কলকাতার তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি ও উত্তর দিনাজপুরে ভারী বৃষ্টি অর্থাৎ ৭০ থেকে ১১০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস।দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতেও ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার গতিবেগে ঝড়ো হাওয়া সঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। উত্তরবঙ্গে রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে ছত্রিশগড় এলাকায়। এর প্রভাবে বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয়বাষ্প ডুকছে রাজ্যে। তার ফলেই ঝড় বৃষ্টির আশঙ্কা। ভারী বৃষ্টি হতে পারে নদিয়া মুর্শিদাবাদ বীরভূম এবং উত্তর ও দক্ষিণ ২৪পরগনায়।

 

আরও পড়ুন, ফুটপাতে রোগী ফেলে পালানোর চেষ্টা পিপিই বেশধারী স্বাস্থ্যকর্মীদের, দেখুন ভিডিও


আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে এক ভয়ানক ঘূর্ণিঝড়। যার নাম দেওয়া হয়েছে আমফান। ৩ মে নাগাদ এই ঘূর্ণিঝড় তীব্র গতি নিয়ে আছড়ে পড়ার পূর্বাভাস। ভারত মহাসাগর ও দক্ষিণ আন্দামান সাগরে তৈরি হয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়। সেই কারণে আগামী ২৪ থেকে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে গভীর নিম্নচাপ তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। ঘূর্ণিঝড় তার পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় আরও শক্তিশালী হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। এটি আছড়ে পড়বে মায়ানমারের উপকূল অঞ্চলে।ঝড়ের সরাসরি প্রভাব পড়তে পারে বাংলাদেশেও। দক্ষিণ মধ্য বঙ্গোপসাগর দিয়ে এই ঝড় মায়ানমার অথবা বাংলাদেশের দিকে চলে যাওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।এই ঝড়ের কারণে নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের কয়েকটি এলাকায় ২ মে এবং আরও বেশ কয়েকটি এলাকায় ১ ও ৩ মে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।

 

 

 

রাজ্য়ে একাধিক করোনা রিপোর্ট 'ফলস' নেগেটিভ, কী বলছেন চিকিৎসকরা

রিপোর্ট 'নেগেটিভ' -পাঠানো হল বাড়ি, ভূল থাকায় ফের ডাক, বাঙ্গুর হাসপাতালে মৃত্যু করোনা আক্রান্তের

স্ক্রিন ছুঁয়েই প্রিয় জনের অনুভূতি, করোনা রুখতে শহরের হাসপাতালে চালু 'ভারচুয়াল ভিজিটিং আওয়ার্স'

বাবুলের কথা এবার চিকিৎসক সংগঠনের মুখে,করোনায় মৃত্যু স্বাস্থ্য়কর্তার -স্বীকার করুক রাজ্য

এবার বেসরকারিতেও করোনা চিকিৎসায় মিলবে বিনামূল্য়ের পরিষেবা, হাসপাতালের খরচও দেবে রাজ্য সরকার