বাসের উঠেই এক মহিল যাত্রীর ঘনঘন কাশির আওয়াজ শুনে তাঁকে সরকারি বাসে নিয়ে বেলেঘাটা আইডিতে সোজা চলে এলেন চালক৷ কিন্তু বাস থেকে নেমে হাসপাতালে পরীক্ষা করাতেই চাইছিলেন না ওই মহিলা৷ চিকিৎসক থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যকর্মীরা এসে হাতজোড় করে অনুরোধ করলেও বাস থেকে নামতে রাজি হননি তিনি৷  শেষমেষ প্রায় আট ঘণ্টা পর অনেক বুঝিয়ে ওই মহিলাকে এম আর বাঙুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷

আরও পড়ুন, কলকাতায় করোনায় আক্রান্ত আরও ১, রাজ্য়ে সংখ্যা বেড়ে এবার ১০

বৃহস্পতিবার দিন সকাল   ওই সন্দেহভাজন মহিলাযাত্রীকে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার একটি বাস বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ঢুকে পড়ে৷ বাসটি বরাকর থেকে ধর্মতলা আসছিল৷ বাস চালক জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ভোর চারটে নাগাদ বরাকর থেকে কলকাতাগামী বাসটিতে ওই মহিলা যাত্রী ওঠেন৷ বাসচালক জানান, বিশেষ ওই সরকারি বাসটিতে ওই যাত্রীকে নিয়ে কলকাতায় নিয়ে আসার জন্য স্থানীয় প্রশাসন থেকেই তাঁকে নির্দেশ দিয়েছিল৷  চালকের  দাবি,  ওই মহিলার বাড়ি বেহালায় ৷ তিনি লখনউতে নিজের কর্মস্থল থেকে ফিরছিলেন৷

আরও পড়ুন, এবার করোনা হাসপাতাল রাজারহাটে, থাকছে একাধিক চিকিৎসক সহ ৫০০টি বেড

অভিযোগ, বাসে ওঠার পর থেকেই ওই মহিলা কাশছিলেন৷ তা দেখেই সন্দেহ হয় বাস চালকের৷ এর পর কলকাতার ধর্মতলায় পৌঁছনোর পরেই বাসচালক পুলিশকে ওই মহিলার কথা জানান৷ এর পরেই পুলিশের পরামর্শ অনুযায়ী ওই বাস নিয়ে চালক সোজা বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে নিয়ে চলে আসেন৷l করোনা রুখতে নজিরবিহীন ঘটনা ঘটালেন ওই বাস চালক। 

আরও পড়ুন, গমগম করা ভিক্টোরিয়া যেন একেবারে ভুতুড়ে বাড়ি, খাঁ খাঁ করছে গোটা চত্বর, দেখুন ভিডিও