কলকাতা পেত চলেছে তার নতুন শেরিফ।  প্রখ্যাত লেখক শংকর তথা মনিশংকর মুখোপাধ্যায়কে এবার শেরিফের পদ অলঙ্করণ করতে দেখা যাবে। আগামী সোমবার আনুষ্ঠানিক ভাবে দায়িত্ব নেবেন তিনি।

শংরের জন্ম ১৯৩৩ সালে যশোরের বনোগ্রামে। পরে  হাওড়ায় থিতু হন শংকরের বাবা।

শংকরের প্রথম বই প্রকাশিত হয় ১৯৫৫ সালে। কত অজানারে গ্রন্থটিকে বাঙালি পাঠক সাদরে বরণ করে নেয়। সত্যজিৎ রায় তাঁর সীমাবদ্ধ ও জনারণ্য উপন্যাসের কাহিনি অবলম্বনে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। তাঁর চৌরঙ্গী উপন্যাস অবলম্বনে বিখ্যাত বাংলা চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে। উল্লেখ্য ২০১২সাল পর্যন্ত চৌরঙ্গী উপন্যাস এর ১১১ টি সংস্করণ বেরিয়েছে। শংকরের উপন্যাসে মুগ্ধ ছিলেন স্বয়ং শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি একটি চিঠিতে শংকরকে উৎসাহ দিয়ে লিখে পাঠান 'ব্রাইট বোল্ড বেপরোয়া।' বিবেকানন্দ গবেষক হিসেবেও খ্যাতির তুঙ্গ স্পর্শ করেছেন শংকর।

প্রসঙ্গত শেরিফ মেয়রের ঠিক পরবর্তী পদ।বিশিষ্ট নাগরিকদের ওপর এক বছরের জন্যে এই কর্তৃত্ব অর্পিত হয়। অতীতে বহু গুণীজন এই পদে আসীন ছিলেন। সাহিত্য়িক সুনীল গঙ্গোপাধ্য়য়ও শেরিফের পদ অলঙ্কৃত করেছিলেন ২০০২ সালে। অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিকও এই দায়িত্ব সামলেছেন। শঙ্করের অব্যবহিত পূর্বে শেরিফ পদে আসীন ছিলেন প্রখ্যাত চিকিৎসক সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়। উল্লখ্য শ্রীমতি সুচিত্রা মিত্র প্রথম নারী হিসেবে শেরিফ পদটিকে অলঙ্কৃত করেন ২০০১ সালে।