বঙ্গ-বিজেপিকে অশালীন ভাষায় কটাক্ষ করলেন ফিরহাদ হাকিম।  ভিন রাজ্য জয়ের আনন্দে বাংলায় কেন এত মিছিল হবে বলতে গিয়েছে অশালীন ভাষায় একগুচ্ছ কথা বলেন ববি হাকিম। তবে এখানেই শেষ নয়, কংগ্রেসকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি ফিরহাদ।

 

 

আরও পড়ুন, নবান্ন অভিযানে পুলিশের বেদম মার খাওয়া কর্মীদের সম্মান জানাবে বিজেপি, জানালেন সৌমিত্র খাঁ

 

ভিন রাজ্যে জিতে বাংলায়  'ছপছপ করে' লাফাচ্ছে বিজেপি

 গেরুয়া শিবির দিল্লিতে জিতেছে, বিহারে জিতেছে', এই অবধি বলে আচমকাই সাংবাদিকদের সামনে মুখ ফসকে বলে বসেন ' বাংলায় বিজেপি জিতেছে'। কিন্তু মুহূর্তে সেই শব্দ ব্রক্ষ্ম ছড়ানোর আগেই সংশোধন করে নিয়ে বলেন, ভিন রাজ্যে জিতে বাংলায়  'ছপছপ করে' লাফাচ্ছে বিজেপি।  বলে একগুচ্ছ অশালীন ভাষায় বঙ্গ-বিজেপিকে কটাক্ষ করেন  ফিরহাদ হাকিম। যা নিয়ে ইতিমধ্য়েই রাজনৈতিক মহলে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। মন্তব্য ঘিরে কড়া নিন্দাও করা হয়েছে। তবে শুধু বিজেপিকে শব্দবাণ ছুড়ে ক্ষান্ত হননি ফিরহাদ। কংগ্রেসকেও আক্রমণ করেছেন তিনি। 

 

আরও পড়ুন, তেজস্বীর জন্য ৪৪ হাজার বিয়ের প্রস্তাব, সরকারি অভিযোগ জানানোর নম্বরেই তরুণীরা জানাত মনের কথা

 

'অধীরবাবু ঘর সামলাতে পারছেন না,  কংগ্রেসকে সিট দিয়ে ভূল হয়েছে তেজস্বী যাদবের '

কংগ্রেসকে তোপ দিয়ে তিনি আরও বলেন, 'অধীরবাবু আসলে ঘর সামলাতে পারছেন না। বিহারে ভরাডুবি। ভূল হয়েছে তেজস্বী যাদবের, যে কংগ্রেসকে অতগুলি সিট দেওয়া। কারণ কংগ্রেস আসতে আসতে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। আমাদের ভাঙন না দেখে নিজেদের সংগঠন দেখুক। কেন এতগুলি সিট নষ্ট করল কংগ্রেস। আজকে তো বিহারে বিজেপির আসার কথা নয়।  অনেকবেশি সিট নিয়ে তেজস্বী যদি লড়ত, তাহলে আজকে সরকার গঠন করতে পারত। কংগ্রেসকে বিশ্বাস করে সিট দিয়েছে, যাদের কোনও অস্তিত্ব নেই। যেমন অধীর বাবু বড় বড় কথা বলেন কিন্তু তাঁর কোনও অস্তিত্ব নেই।'

 

 

তপিশিয়া অগ্নিকাণ্ডের চব্বিশ ঘন্টা পেরিয়েছে, কী বলল ফিরহাদ

অপরদিকে সবে তপিশিয়া অগ্নিকাণ্ডের চব্বিশ ঘন্টা পেরিয়েছে। আগুন সামাল দিতে ২২ দমকলেরগাড়ি গিয়েও হিমশিম খেয়েচে। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে গিয়েছে ১০০ টিরও বেশি ঘর। সেই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করতেই ফিরহাদ বলেন, ওখানে পরিষ্কার করা হচ্ছে। তারপর আমরা একটা সাহায্য করবে। যাতে ওরা পুনরায় বাড়ি র্নিমান করতে পারে, সেজন্য মুখ্যমন্ত্রীর আদেশ অনুযায়ী আমরা একটা সাহায্য দেব । 

আরও পড়ুন, মূল্যবদ্ধি ৭ শতাংশ ছাড়ানোর আশঙ্কা, কী পূর্বাভাস দিলেন বিশেষজ্ঞরা