করোনার আবহেই আবারও সফল অঙ্গদান প্রক্রিয়া। তবে এই প্রথমবার ব্রেন ডেথ রোগীর অঙ্গ পৌঁছে গেল হায়দরাবাদে।  এবং একাধিক গুরুত্বপূর্ণ  অঙ্গ পৌঁছল এসএসকেএম ও শহরের বিশিষ্ট চক্ষু হাসপাতালে। রোগীর নাম পীযুষ কান্তি ঘোষাল। পীযুষ অন্যের মধ্যে বেঁচে থাকুক ভেবেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেয় তার পরিবার। 

আরও দেখুন, কলকাতায় কমল কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা, স্বস্তিতে শহরবাসী, দেখুন ছবি


ব্রেন টিউমার নিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ইনস্টিটিউট অফ নিউরো সায়েন্সেসে বৃহস্পতিবার  ভর্তি করা হয় হুগলির উত্তরপাড়ার বাসিন্দা বছর চুয়াল্লিশের পীযূষকান্তি ঘোষালকে। শারীরিক অবস্থায় আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে ভেন্টিলেশনে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। শুক্রবার রাতেই ওই যুবকের ব্রেন ডেথ হয়। চিকিৎসকরা ওই যুবকের ব্রেন ডেথ ঘোষণা করার পরই পীযূষকান্তি ঘোষালের অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেয় তাঁর পরিবার। রবিবার থেকে শুরু হয় সেই প্রক্রিয়া। 

আরও পড়ুন, সোমবার থেকে টানা ভারী বৃষ্টি কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে, উপকূলে ৫০ কিমি বেগে বইবে ঝোড়ো হাওয়া

 
রোটর থেকে একটি বিশেষ প্রতিনিধি দল এসে পৌঁছয় মল্লিক বাজারের ইনস্টিটিউট অফ নিউরোসায়েন্সে। এরপর গভীর রাতে অস্ত্রোপচার শেষ হলে অঙ্গদানের প্রক্রিয়াকরণ শুরু করা হয়। রবিবার মধ্য রাতে গ্রিন করিডর করে সেই অঙ্গ পৌঁছায় তিন-তিনটি  হাসপাতালে। গ্রিন করিডোর দিয়ে পুলিশি সহায়তায় অঙ্গ পৌঁছায় কলকাতা বিমানবন্দরে।  এরপর কেআইএমএস হায়দরাবাদে নিয়ে যাওয়া হয় ফুসফুস। অপরদিকে, এসএসকেএম-এ পাঠানো হয় কিডনি ও ত্বক। আর শঙ্কর নেত্রালয়ে পাঠানো হয় কর্নিয়া।

 

       

 

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে