রাজ্যের বেসরকারি হাসাপতালের বিরুদ্ধে বারংবার অভিযোগ পেতেই কড়া পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার। বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড রোগী ভর্তির সময়ে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না। ভর্তির সময় টাকা না দিতে পারলেও পরিষেবা দিতে হবে টানা ১২ ঘন্টা। নতুন নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য।


বেসরকারি হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে লাগাম ছাড়া বিলের অভিযোগ আগে থেকেই ছিল। সেই অভিযোগ যেন রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে আরও কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে। বিলের অত্য়াচারে অনেকেই ইতিমধ্য়ে সর্বশান্ত হয়েছেন। কোভিড রোগী ও রোগীর পরিবারের এরপরেই  নতুন নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য।বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড রোগী ভর্তির সময়ে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না। পাশপাশি ভর্তির সময় রোগীর পরিবার টাকা দিতে না পারলেও রোগীকে ভর্তি নিতে হবে। রোগীকে ১২ ঘণ্টা ট্রিটমেন্ট দিতে হবে। ওই ১২ ঘণ্টা পর যদি রোগীর পরিবার টাকা না দিতে পারে, তাহলে আরও ১ ঘণ্টা পর ওই রোগীকে ছেড়ে দিতে পারে হাসপাতাল ৷


নির্দেশিকায় এও বলা হয়েছে, ভর্তির সময় রোগীর পরিবারকে সম্ভাব্য বিলের একটা আন্দাজ তখনই জানাতে বাধ্য হাসপাতাল ৷ চিকিৎসা শুরুর আগে সম্ভাব্য খরচের শুধু ২০ শতাংশ দাবি করতে পারে হাসপাতাল ৷ এছাড়া প্রতিদিন রোগীর পরিবারকে বিলের পরিমাণ জানাতে হবে ৷ ২ হাজার টাকার বেশি দামি টেস্ট করাতে হলে অবশ্যই পরিবারকে জানিয়ে অনুমতি নিতে হবে।  ব্যাঙ্কের মাধ্যমে বিল পেমেন্ট করতে হবে অনলাইন পেমেন্ট বা চেকের মাধ্যমে ৷ কোন খাতে কী খরচ হচ্ছে তা রোগীর পরিবারকে এসএমএস-এ জানাতে হবে ৷

 

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের