মোদির পাশে দাঁড়াতে মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে টুইট করার ২৪ ঘন্টার মধ্য়ে ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টুইটে খোঁচা দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়‌। বুধবার সংবিধানে কেন্দ্র ও রাজ্যকে একইসঙ্গে উভয়েরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের কথাও যে বলা রয়েছে, তা মনে করাতে  ট্যুইট করেছিলেন রাজ্যপাল। আর তার একদিনের মধ্য়েই ফের বৃহস্পতিবার, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়‌  টুইট করে একাধিক কথা জানালেন।

আরও পড়ুন, সঙ্ঘাত শেষেও ঘরবন্দি, করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মুখ্যসচিবকে চিঠি কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের

বৃহস্পতিবার টুইট করে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়‌  বলেন 'কেন্দ্রীয় দলের সঙ্গে অসৌজন্য নিয়ে উদ্বিগ্ন। নির্বিঘ্নে কাজ নিশ্চিত করুন মুখ্যমন্ত্রী। 'বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থা'-র দলকে স্বাগত জানানো হয় রাজ্যে। 'বিশ্ব স্বাস্থ্য় সংস্থা' আশায় লাভ কি হল মুখ্যমন্ত্রী বলুন। সংবিধান মেনে চলুন। যাদের ধরার কথা তারাই মাইক ধরুন।'   করোনাভাইরাস মোকাবিলা নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে একাধিকবার সরব হয়েছেন রাজ্যপাল। রাজ্যের লকডাউন বিধি লঙ্ঘন, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সের অসফলতা নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে একাধিকবার মুখ খুলেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্যে টুইটে প্রশ্ন করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

 

 

 

 আরও পড়ুন, নিরপেক্ষ ভাবেই রিপোর্ট তৈরি করবে কেন্দ্রীয় দল, সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে আশা রাজ্যের


অপরদিকে বুধবার সন্ধ্যায় প্রতিনিধি দলের প্রধান হিসেবে অপূর্ব চন্দ্র রাজ্যের মুখ্যসচিবকে চার পাতার একটি চিঠি পাঠান। ওই চিঠিতে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কোথায় কোথায় যেতে চান তাঁরা এবং  কী কী নিরাপত্তা ও সুরক্ষার বন্দোবস্ত করতে হবে রাজ্য সরকারকে তাও বিস্তারিত জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় কার্যত গোটা ব্যবস্থাকেই খতিয়ে দেখতে চেয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিরা। এছাড়াও প্রতিনিধি দলের ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, রাজ্যে কোভিড-১৯ টেস্টের প্রক্রিয়া, টেস্টের সংখ্যা, কিটের পরিমাণ, করোনায় মৃত ঘোষণার প্রক্রিয়ার মতো বিষয়ও খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা হবে। এরই সঙ্গে কেন্দ্রের কাছে রাজ্য সরকারের কোনও  দাবিদাওয়া থাকলে তাও জানাতে পারবে রাজ্য।কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল কোথায় কোথায় পরিদর্শনে যাবে সেই বিষয়ে বিস্তারিত তালিকা দেওয়া হয় রাজ্যের মুখ্য়সচিবকে। যার মধ্যে রাজ্যের চার জেলার হটস্পট গুলিকে উল্লেখ করেছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। আর এমন সময় বৃহস্পতিবার কার্যত টুইট করে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে  দেওয়ার কথা মুখ্যমন্ত্রীকে বললেন রাজ্যপাল।

 

 

বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া, মেডিক্য়ালে চিকিৎসক ও সংক্রামিত রোগী থেকে কোয়ারেন্টিনে অন্তত আরও ৪৫

  করোনা পজিটিভ প্রসূতির সুস্থ সন্তান, খুশির হাওয়া ফুলেশ্বরের হাসপাতালে

  করোনার কোপ এবার বাইপাসের ধারের বস্তিতে, ১৫০০০ মানুষকে পাঠানো হল কোয়ারেনন্টিনে