ঘুড়ির মাঞ্জা সুতোর কারণে একাধিকবার মা উড়ালপুলে দুর্ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি এক ব্যক্তি ঘুড়ির  মাঞ্জা সুতোর জেরে প্রাণও হারিয়েছিলেন। তাই  এবার থেকে রোজ মা উড়ালপুলে নজরদারি চালাবেন পুলিশ কর্মীরা। নজরদারি চালানোর জন্য পাঁচ পুলিশ কর্মীর একটি দল গঠন করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন, রেজিস্ট্রেশন না মেলায় জুটছে না চাকরি, বেহাল দশা ভিন রাজ্য থেকে আসা নার্সিং স্টাফদের


জানা গিয়েছে, মা উড়ালপুলে  নজরদারি চালানোর জন্য পাঁচ পুলিশ কর্মীর একটি দল গঠন করা হয়েছে। প্রতিদিন দুপুর তিনটে থেকে সন্ধে পর্যন্ত উড়ালপুলেই থাকবেন তাঁরা। পায়ে হেঁটে মূলত পার্ক সার্কাস সংলগ্ন এলাকায় নজরদারি চালাবেন। কোনও ঘুড়ি যদি তাঁরা কাটতে দেখেন, সেটি যাতে কোনওভাবেই উড়ালপুলে এসে না পড়ে সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন ওই পুলিশ কর্মীরা। তবে শুধু দল গঠনই নয়, উড়ালপুলে পুলিশের দুটি কিয়স্কও তৈরি করা হয়েছে। লালবাজার সূত্রে খবর, এই কিয়স্কের মাধ্যমে উড়ালপুরের যান নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি ঘুড়ির উপরও নজর রাখা হবে। নিত্যদিন যাদের মা উড়ালপুল ব্যবহার করতেই হয় লালবাজারের সিদ্ধান্তে খুশি তাঁরা। এতে দুর্ঘটনা কমবে বলেই আশাবাদী প্রত্যেকে।

আরও পড়ুন, গনেশ পুজোর আগের দু'দিন লকডাউন, কেনাকাটি করতে গিয়ে হিমশিম শহরবাসীর

প্রসঙ্গত, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মাঞ্জা সুতোর কারণে রীতিমতো মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে মা উড়ালপুল। চলতি বছরের মে মাসে সেখানেই ঘুড়ির সুতোয় গলা কেটে মৃত্যু হয় একজনের। খিদিরপুরের বাসিন্দা ছিলেন আফতাব খান নামে বছর ৪০-এর ওই ব্যক্তি। ঘটনার দিন বাইকে মা উড়ালপুর ধরে কোনও বিশেষ কাজে যাচ্ছিলেন তিনি। লকডাউনে উড়ালপুল ফাঁকা থাকায় একটু বেশিই ছিল তাঁর বাইকের গতি। আর তাতেই ঘটে সমস্যা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই চিনা মাঞ্জা সুতোয় ভয়ংকরভাবে কেটে যায় গলা। শুরু হয় রক্তপাত। সেই অবস্থাতেই প্রবল মানসিক জোর নিয়ে গাড়ি চালিয়ে নিজের এলাকায় পৌঁছন তিনি। এলাকায় প্রবেশের সঙ্গে স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় হাসপাতালে। সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন ডাক্তাররা।

      

 

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে