শুক্রবার আলিপুর চিড়িয়াখানায় সিংহের খাঁচায় ঢুকে পড়েন আচমকাই এক ব্যক্তি। কোনও কিছু বুঝে নেওয়ার আগেই তার উপর থাবা বসায় সিংহ। নিরাপত্তারক্ষাদের চোখে পড়তেই তাঁকে উদ্ধার করতে যান। কিন্তু পুরো ঘটনাটা এতটাই দ্রততার সঙ্গে ঘটে যে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যায়। সিংহের থাবায় গুরুতর জখম হন ওই ব্যাক্তি। এবং খাঁচার মধ্য়েই লুটিয়ে পড়েন। এই মুহূর্তে তিনি এসএসকেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

আরও পড়ুন, মেট্রোডেয়ারি মামলায় ED-র দফতরে IAS রাজেশ কুমার, রাজ্যের আরেক আমলাকেও তলব  

 

 


জানা গিয়েছে, জখম ওই ব্য়াক্তির নাম গৌতম গুছাইত। পূর্বমেদিনীপুরে পটাশপুর বাসিন্দা গৌতমকে এদিন সিংহের খাঁচা থেকে গেরুয়া বসন পরা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। চিড়িয়াখানা সূত্রের খবর, এদিন সকাল ১০ টা ৩০ নাগাদ ওই ব্য়ক্তিকে দেখা যায় যে, আচমকাই তিনি সিংহের খাঁচায় ঢুকে পড়েছেন। এদিকে চিড়িয়াখানায় প্রায় সমস্ত হিংস্র জীবজন্তুদের খাঁচার বাইরে বাউন্ডারিতে নিরাপত্তার জন্য জলাধার করে ফের লম্বা লোহার নেট তুলে দেওয়া থাকে। এক্ষেত্রে তার ব্যাতিক্রম হয়নি। জখম ওই ব্য়াক্তিটি জলাধার পেরিয়ে বেড়া জালের মধ্য়ে ঢুকে পড়েন তিনি। এদিকে ঠিক সেই সময়টাতেই  সিংহের দরজা হাট করে খোলা ছিল।  আর মুহূর্তে দেরি না করে সিংহটি ঝাপিয়ে পড়ে গৌতমের ওপর। এদিকে খবর পৌছতেই চলে আসে চিড়িয়াখানার কর্মীরা। সিংহটিকে কোনও রকমে তার খাচার মধ্য়ে ঢুকিয়ে গৌতমকে উদ্ধার করেন। 

আরও পড়ুন, গরুপাচারকাণ্ডে বিনয় মিশ্রের বাড়ি বাজেয়াপ্ত করল ED, নজর এড়াতে অন্য নামে রেজিস্টার  

 

এদিকে গৌতম এই মুহূর্তে এসএসকেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।  হাসপাতাল সূত্রে খবর, ডান পায়ে থাবা বসিয়েছে সিংহটি। আঁচড়ের চোটে গুরুতর জখম ওই ব্যাক্তি। কোমরেও চোট লেগেছে। প্রাথমিকভাবে সার্জারিবিভাগের অধীনে ভর্তি রাখা হয়েছে তাঁকে। তবে প্রশ্ন উঠেছে, কীভাবে ওই ব্য়াক্তি চিড়িয়াখানার কর্মীদের চোখ এড়িয়ে সিংহের খাঁচায় ঢুকে পড়ল, স্বাভাবিকভাবেই কাঠগোড়ায় আলিপুর চিড়িয়াখানায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা।