অফিস টাইমে সকাল ও সন্ধে অল্প সংখ্যক ট্রেন চালানোর ভাবনা রাজ্য সরকারের। সেই মতো পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজারকে চিঠি দিয়েছে রাজ্য সরকার। এই বিষয়ে আলোচনা করতে চায় নবান্ন। কিন্তু কবে থেকে চলবে লোকাল ট্রেন। মহামারির আবহে লোকাল ট্রেনে ভিড় নিয়ন্ত্রণে কী ব্যবস্থা। এই সব বিষয়ে আজ সিদ্ধান্ত হতে পারে রেল-রাজ্যের বৈঠকে।

আরও পড়ুন-বিজয় শীল হত্যায় ন্যায় বিচারের দাবি,কল্যাণী ১২ ঘণ্টার বনধ-থানায় বিক্ষোভ কর্মূসচি বিজেপির

সূ্ত্রের খবর, করোনা আবহের মধ্যে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করে কীভাবে বাংলায় লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করা যায়, তা নিয়ে আজ আলোচনা হতে পারে রাজ্য প্রশাসন ও রেলের বৈঠকে। তবে মেট্রোর মতো ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে লোকাল ট্রেন চালু করার ভাবনা রয়েছে রাজ্য সরকারের। ভার্চুয়াল পদ্ধতি অবলম্বন করে মেট্রো চলচলা শুরু হয়েছে শহর কলকাতায়। একই পদ্ধতি মেনে লোকাল ট্রেন পরিষেবার ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

আবারও সঙ্কটজনক অবস্থায় অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্য়ায়, শুরু হয়েছে অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণ

পাশাপাশি, যে সংস্থা মেট্রোর ই-পাস ব্যবস্থা করেছে। সেই সংস্থার সঙ্গে আজকের বৈঠকে কথা বলতে পারে রাজ্য ও রেল। মুম্বইয়ে লোকাল ট্রেনের ভিড় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে কলকাতা মেট্রোয় ই-পাসের ভারপ্রাপ্ত সংস্থার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আগে কলকাতা ও শিয়ালদহে লোকাল ট্রেনের যাত্রী সংখ্যা ছিল দৈনিক ৩৫ লক্ষ। অফিস টাইমে সকাল সন্ধে অল্প সংখ্যক লোকাল ট্রেন চালু করা হলে ভিড়ের জনজোয়ার তৈরি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এই অবস্থায় আরও কিছুটা সময় নিয়ে লোকাল ট্রেন চালুর চিন্তা ভাবনা করছে রাজ্য সরকার। যদিও, ই-পাসের মাধ্যমে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হলে তার জন্য আরও কিছুটা সময় লাগতে লাগতে পারে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞদের একাংশ।