আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা। কৈলাশ থেকে ছেলেপুলে সহ বাপের বাড়ি আসছেন 'মা'। শরতের মেঘলা আকাশ, শিউলি ফুলের গন্ধ ইতিমধ্যেই জানান দিচ্ছে সে কথা। সেই মত সারা বাংলায় শুরু হয়ে গিয়েছে পুজোর প্রস্তুতি পর্বও। কুমোড়টুলির মতো নানান জায়গায় জোড় কদমে চলছে মায়ের মূর্তি তৈরির অন্তিম পর্ব। পাড়ায় পাড়ায় শুরু হয়ে গিয়েছে প্যান্ডেল তৈরির প্রস্তুতি। আর এরই মধ্যে নিজেদের নতুন নতুন চিন্তাভাবনা নিয়ে প্যান্ডেলের কাজ শুরু করেছে দুর্গা পুজো কমিটি এবং ক্লাবগুলি। সারা বছর ধরে অধীর আগ্রহে মানুষ অপেক্ষা করে থাকেন দুর্গা পুজোর জন্য। তার মধ্যে কলকাতার পুজো-কে ঘিরে উন্মাদনা থাকে আরও তুঙ্গে। পুজো পুজো গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে চারিদেক। শপিং থেকে প্যান্ডেল হপিং-এর প্ল্যান শুরু হয়ে গিয়েছে এরই মধ্যে। আর এই পুজো আড্ডা বলতেই মনে আসে ম্যাডক্স স্কোয়ারের মাঠে বসে আড্ডা। সেখানেও এখন জোর কদমে চলছে প্রস্তুতি। 

আরও পড়ুন- কেরালার 'মুরুগান টেম্পল' এবার মহম্মদ আলি পার্ক-এ

কলকাতার পুজো আড্ডা মনেই ম্যাডক্স স্কোয়ারের। কলকাতার নতুন প্রজন্ম সেখানেই এসে ভিড় জমায় পুজোর একটা দিন জমিয়ে আড্ডা মারতে। সেই ম্যাডক্স স্কয়ারেও এখন পুজোর প্রস্তুতি তুঙ্গে। সেখানে পুজোর কোনও থিম না থাকলে। সেখানকার প্রতিমা দেখবার মত। প্যান্ডেলের জাকজমক তেমন না থাকলেও খোলা মাঠের মধ্যে ছিমছাম প্যানডাল আর ঝাড়বাতি নজরকাড়ে সেখানকার দর্শকদের। শুধু তাই নয় সেখানকার প্রতিমাও বেশ আকর্ষনিয়। সেখানকার মায়ের অসাধারণ সাজ সকলের নজর কাড়ে। আর তাই সেখানেও পুরো দমে শুরু হয়ে গিয়েছে পুজোর প্রস্তুতি। সেই জন্যই সেখানে বাঁশ পড়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। এখন সবার মধ্যে টানটান উত্তেজনা কখন আসবে পুজো। তার জন্য আর কিছু দিনের অপেক্ষা। অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আর একারাশ আড্ডা নিয়ে অন্য বছরের মত এবছরও আসছে ম্যাডক্স স্কোয়ারের। সেই আড্ডার জন্য আর মাত্র কিছু দিনের অপেক্ষা।