দিলীপ ঘোষের পর এবার মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। করোনা রুখতে গোমূত্র পান সমর্থন করেছিলেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি। এবার সেই পথে না হাঁটলেও করোনা মোকাবিলায় নিমাপাতার নিদান দিলেন মুখ্য়মন্ত্রী।

আরও এক করোনা আক্রান্ত রাজ্য়ে, সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো চার

এদিন  মুখ্য়মমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাস কাল থেকে স্টেজ ২-তে যাচ্ছে। তাই  নিমপাতা চিবোন।  এই সময়টা আমরা নিমপাতা চিবোই, কারণ তাতে বহু রোগ দূরে সরে যায়। মোদ্দা কথা, নিজের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ান। বাইরের খাবার খাবেন না। ঘরের খাবারেই মনোনিবেশ করুন। যারা না খেয়ে-দেয়ে ডায়েট করেন, তারা বুঝুন- যে না খেলে পেট খালি থাকে, আর তাতে নানা রোগ আক্রমণ করতে পারে। তাই, ডায়েট না করে পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবার খান।

রেল পরিষেবা বন্ধ, জনতা কারফিউতে চালু থাকবে মেট্রো.

প্রোটিন এবং কার্বোহাইড্রেড জাতীয় খাবার প্রচুর পরিমাণে খান। শুধু প্রোটিন খেলে হবে না, কার্বোহাইড্রেড-ও খেতে হবে, বেশি জমায়েতের মধ্যে যাবেন না। কেউ বেশি জমায়েত করবেন না।  এই বলেই অবশ্য় থেমে থাকেননি  মুখ্য়মন্ত্রী। তাঁর সংযোজন,করোনা মোকাবিলায় রেলের গাফিলতি রয়েছে। ট্রেনগুলোকে অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে, রেলের এই গাফিলতির বিষয়ে কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে। 

১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত উচ্চ মাধ্যমিক , করোনার ভয়ে বাতিল ২৩-২৫ মার্চের পরীক্ষা..

সম্প্রতি বিভিন্ন হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক ও বেসরকারি হাসপাতালের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্য়মন্ত্রী। সেখানে তিনি বলেন, এসি-বন্ধ রেখে এখন  জানলা ,দরজা খুলে দিতে হবে। তাতে ভাইরাসগুলো বেড়িয়ে যাবে। করোনা ভাইরাস গরম এবং হাওয়া চলাচল করে এমন স্থানে বেঁচে থাকে না। বরং ঠান্ডা জায়গায় বিশেষ করে এসি-তে খুব দ্রুত ছড়়ায়। জানলা খুলে রাখলে হাওয়া চলাচল করবে এবং ভাইরাস টিকবে না। আপনারা যে যেখানে যখন থাকবেন চেষ্টা করবেন প্রকৃতির স্বাভাবিক হাওয়ায় থাকতে। এতে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর কম সম্ভাবনা থাকে।