করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে দেশের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্য়ের মুখ্য়মন্ত্রী এদিন পুরো পরিস্থিতি সামলাতে কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তোলেন। সোমবার  সাংবাদিক বৈঠকে নিয়ে মমতা বলেন,'‌আজ আমাদের তিনঘণ্টা বৈঠকে বসিয়ে রাখা হল।' এই নিয়ে রীতিমত উষ্মা প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন, 'জরুরী নয়-এমন পণ্য়েও হোম ডেলিভারিতে ছাড়', সোমবার নবান্নে জানালেন মুখ্য়মন্ত্রী
 

সোমবার আজ সাংবাদিক বৈঠকে নিয়ে মমতা বলেন,'‌আজ আমাদের ৩ ঘণ্টা বৈঠকে বসিয়ে রাখা হল। আমাদের বলার সামান্য সুযোগ দিলে আমরা অন্তত একবার পরিস্থিতিটা জানাতে পারতাম। কিন্তু আমাদের কিছুই বলার সুযোগ দেওয়া হল না।' সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর আজকের বৈঠকে কীভাবে দেশের বিভিন্ন রাজ্যগুলি করোনা মোকাবিলায় কাজ করছে, সেই নিয়ে আলোচনা হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়েও রাজ্যগুলির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী আলোচনা করেছেন। তবে আজ বৈঠকে মমতা বন্দোপাধ্যায়কে কিছুই বলতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন, রাজ্য়ে ২১ মে পর্যন্ত লকডাউন! নবান্নে ইঙ্গিত দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

করোনা মোকাবিলায় রাজ্যের পক্ষ থেকে অনেকগুলো আবেদন সোমবার সাংবাদিক বৈঠক থেকেই মমতা করেন। তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলা করতে গেলে আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ রাখতে হবে। দূরপাল্লার কোনও ট্রেন চালানো যাবে না। আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবা বন্ধ রাখতে হবে। আন্তর্জাতিক ও অন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবাও বন্ধ রাখতে হবে। এই বিষয়ে কেন্দ্রকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আবেদন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। 
 

 

 

 

চিন থেকে সোজা কলকাতা বিমানবন্দরে, ১০ টন করোনা-চিকিৎসার সামগ্রী নিয়ে শহরে নামল উড়ান

স্ক্রিন ছুঁয়েই প্রিয় জনের অনুভূতি, করোনা রুখতে শহরের হাসপাতালে চালু 'ভারচুয়াল ভিজিটিং আওয়ার্স'

বাবুলের কথা এবার চিকিৎসক সংগঠনের মুখে,করোনায় মৃত্যু স্বাস্থ্য়কর্তার -স্বীকার করুক রাজ্য

এবার বেসরকারিতেও করোনা চিকিৎসায় মিলবে বিনামূল্য়ের পরিষেবা, হাসপাতালের খরচও দেবে রাজ্য সরকার