সচেতন করতে গিয়ে অচেতন উদ্য়োগ। কোরোনা আতঙ্কের মধ্যেই কলকাতায় অনুষ্ঠিত হল মুখে মাস্ক পরে অভিনব ফ্যাশান শো। এই শো ঘিরেই শুরু হয়েছে যাবতীয় বিতর্ক।

কাসর-ঘণ্টায় কাজ হচ্ছে না, মাস্ক না পেয়ে বিক্ষোভে বেলেঘাটা আইডি...

 বিশ্বের কাছে মহামারী কোরোনা ভাইরাসে মানুষ আতঙ্কিত।এরই মধ্যে শনিবার সল্টলেকের সেক্টর ফাইভের এক হোটেলে করোনা সচেতনতা বাড়াতে এক অভিনব ফ্যাশন শো’র আয়োজন করা হয়েছিল। কিডস, মিস ও মিসেস ইন্ডিয়া ফ্যাশন শো-এর।সকলেই মুখে মাস্ক পরে তারপর রাম্প শো এ হাঁটলেন। এই অভিনব ফ্যাশন শো এর আয়োজনে ছিলেন ২০১৯এর মিসেস এশিয়া কোন্টিনেন্ট বিজয়ী শ্রীমতী হিনা কাউসের।এছাড়া ও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বলিউড অভিনেতা রাহুল রায়, বরুণ সুরি ও কোরিওগ্রাফি সাব্বির আলী প্রমুখ। 

কথা না শুনে দেদার পেটাচ্ছে পুলিশ, মুখ্য়মন্ত্রীর কাছে গেল চিঠি..

 আশিকি- ফিল্মের নায়ক রাহুল রায় বলেন, করোনা সচেতনতা বাড়াতেই এই শো এর আয়োজন করা হয়েছে,তাই আমি এসেছি। আমি নির্দিষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করেই এই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে। প্রধান আয়োজক মডেল হিনা কাউসের বলেন, “আমরা প্রত্যেকে নিজেদের মধ্যে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে এবং মাস্ক পড়তে নির্দেশ দিয়েছি।”ও সমস্ত সচেতনতা অবলম্বন করেই এই শো এর আয়োজন করেছি। অনুষ্ঠানে শিশুদের মধ্যে জয়ী হোন আকাশী আনন্দ, মিস ক্যাটাগরিতে জয়ী হোন মধুরিমা মন্ডল, ও মিসেস ক্যাটাগরিতে জয়ী হোন শ্রীমতী লাবনী দাস।

করোনা আতঙ্কে জেরবার, মাস্ক পরে ফ্য়াশন শো কলকাতায়.

তবে শো-এর মূল উদ্দেশ্য় করোনা  সচেতনতা ছিল কিনা তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। যেখানে সোশ্য়াল ডিস্ট্য়ান্সিংয়ের কথা বলা হচ্ছে সেখানে একই মঞ্চে একাধারে দেখা গেল কচি কাচা থেকে বড়দের।