আজ  বৃহস্পতিবার ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের লেকগার্ডেনসের বাড়িতে জাঁকজমকের সহিত সরস্বতী পূজা হচ্ছে। প্রতিবছর মত এবারও মাটির টানে সুদূর সিঙ্গাপুর থেকে ঋতুপর্ণা চলে এসেছেন নিজের দেশের বাড়িতে। সকাল থেকে তাই পূজার আমেজে ভিড় জমে গিয়েছে ঋতুপর্ণার বাড়িতে। উপস্থিত ছিলেন পরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্য়ায়, পরিচালক সন্দীপ চৌধুরী, বিদিশা চৌধুরী, জয় ভট্টাচার্য এবং ঋতুপর্ণার পরিবার।

 

 

 

আরও পড়ুন, জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার অপরাধ, সাসপেন্ড হলেন প্যান্টালুনসের ২৫জন কর্মী

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা বাজতেই, সল্টলেক থেকে এলেন পুরোহিত মশাই। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের লেকগার্ডেনসের বাড়িতে দেবী  সরস্বতীর প্রাণ প্রতিষ্ঠা করলেন। তারপর শুরু হল অঞ্জলি-পর্ব। ফুলে,প্রদীপে-প্রসাদে দেবী  সরস্বতীর আরাধনা করলেন ঋতুপর্ণার বাড়ির সকলে এবং বিশিষ্টগণ। অঞ্জলি শেষে আমাদের সংবাদমাধ্য়মকে ইন্টারভিউ দেওয়ার মাঝে প্রসাদ নিয়েছি কিনা জিজ্ঞেস করতে ভূললেন না। নিজে হাতেই উপস্থিত সকলকে আন্তরিকভাবে দেবী  সরস্বতীকে অর্পিত প্রসাদ তুলে দিলেন।  তবে তারই মাঝে বললেন নিজের সন্তানের কথা, পুরো পরিবারের জন্য় তিনি ব্রত রেখেছেন বাগদেবীর কাছে। তাই মিসও করছেন তাদেরকে ভীষনভাবে। কথায়-কথায় জানালেন, তার একটা নতুন বাড়িও হয়েছে।

 

 

আরও পড়ুন, তৃণমূলে প্রশান্ত কিশোর, কী বললেন পার্থ

অপরদিকে, প্রতি বছর সরস্বতী পূজায় ঋতুপর্ণার লেকগার্ডেনসের বাড়িতে নতুন ছবির প্রমোশন করেন তিনি নিজেই। আর এবছর তার নতুন ছবি  'বিদ্রোহিনী'-র  প্রমোশন হল সেই ঐতিজ্য় মেনেই দেবী  সরস্বতীর সামনেই। 'বিদ্রোহিনী'-র প্রধান চরিত্র পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় আছেন স্বয়ং ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। নারী সুরক্ষা,নিরাপত্তা এবং অধিকার পাইয়ে দিতেই প্রতিবাদী চরিত্রে রয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। এই ছবি পরিচালনা করছেন সন্দীপ চৌধুরী।