সারা বিশ্বজুড়ে যখন করোনা আতঙ্ক, ঠিক সেই সময় সাধারণ মৃত্যুকেও করোনা আতঙ্ক পিছু ছাড়ল না। হরিদেবপুর থানার বড় বাগান এলাকার  বছর ষাটের বিপ্লব চৌধুরি শুক্রবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ নিজেই বাড়িতেই মারা যান। জ্বর হওয়ার কারণে মারা যাওয়ার খবর শুনে এলাকায় তীব্র আতঙ্ক ছড়ায়। 

 

 

আরও পড়ুন, করনা রুখতে এগিয়ে এল যাদবপুর, একদিনের বেতন দান করলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক-আধিকারিকরা

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, বেশ কয়েক দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন হরিদেবপুর থানার বড় বাগান এলাকার বিপ্লব চৌধুরি। সেই খবর পাওয়া মাত্র এলাকার লোকেরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। এমনকি স্থানীয় কোনও চিকিৎসকেরাই এসে ডেথ সার্টিফিকেট দিতে রাজি হয় না। দীর্ঘক্ষণ ধরে বাড়ির মধ্যেই পড়ে থাকে মৃতদেহ। পরবর্তীকালে স্থানীয় কাউন্সিলর রাজীব দাস ও হরিদেবপুর থানার উদ্যোগে পৌরসভার ডাক্তারের সার্টিফিকেট দেওয়ার পরে পরিবারের লোকজন শ্মশানের উদ্দেশ্যে দেহ নিয়ে যাওয়া হয়।

আরও পড়ুন, জোর করে ট্রেন থেকে স্বাস্থ্যকর্মী দম্পতিকে নামিয়ে দিল আরপিএফ, রেল বলল 'আউটসাইডার'

করোনা আক্রান্তের সঙ্গেই আতঙ্ক বাড়ছে রাজ্য়বাসীর। উল্লেখ্য়, দেশে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৭০০ ছাড়িয়ে গেল। শুক্রবার  পর্যন্ত আরও ৩০ জনের নতুন করে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। এর ফলে ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যাও ৭২০ এর উপরে। ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ১৮। রাজ্য়ে ইতিমধ্য়েই এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। তবে পাশাপাশি এখনও পর্যন্ত আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থও হয়ে উঠেছেন ৬৬ জন।


আরও পড়ুন, এবার নিজের খরচে হোটেলেও থাকা যাবে কোয়রান্টিনে, জানাল স্বাস্থ্য দফতর