ফের মাদক পাচারের ঘটনায় তিন জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, কলকাতা ও বেঙ্গল পুলিশের এসটিএফের দুটি ভিন্ন অভিযানে, নারকেলডাঙা ও লেকটাউন থেকে উদ্ধার হল বিপুল পরিমাণ মাদক। এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে মোট তিন জনকে। কলকাতা পুলিশের এসটিএফের সূত্রের খবর, প্রথমে নারকেলডাঙা থেকে গ্রেফতার করা হয় পাপন সরকার ও তপনকুমার দত্ত নামে দুই যুবককে।

আরও পড়ুন, উত্তরবঙ্গে চলবে বৃষ্টি, দক্ষিণবঙ্গে কাল থেকে বাড়বে তাপমাত্রা

পুলিশি সূত্রের খবর, তল্লাশিতে মেলে সাড়ে ১২ কেজিরও বেশি আফিম। আন্তর্জাতিক বাজারে যার দাম এক কোটি টাকা। পাপন বীরভূমের এবং তপন কোচবিহারের লোক। এসটিএফের দাবি, ধৃত ওই দু জন কলকাতার মাদক কারবারিদের আফিম সরবরাহ করতে এসেছিল। লেকটাউন এলাকায় অভিযানে রাজ্য পুলিশের স্পেশাল টাস্কফোর্স ২০ লক্ষ টাকার হেরোইন সহ মালদার কালিয়াচকের বাসিন্দা কবিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। 

আরও পড়ুন, কেটে গেল জট, ১ মার্চ শহিদ মিনারে সভা অমিত শাহের


গোয়েন্দাদের দাবি, মূলত মালদা থেকে রেলপথে মাদক নিয়ে এসে  তা শহরের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিত কবিরুলদের চক্র। উল্লেখ্য় এর আগেও গত বছর বড়দিনের রাতে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিল মাদক পাচারকারীর দল। পুলিশের চোখে ধুলো দেবার জন্য় তারা মুশুরির ডালের মধ্য়ে প্য়াকেট করে বিপুল পরিমানে মাদক পাচার করছিল। যাদের মূলত লক্ষ্য় ছিল এই উৎসবের মরসুমে কলকাতার বুকে মাদক ছড়িয়ে দিয়ে বিপুল পরিমানে মুনাফা জিতে নেওয়া।  গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রাতে আনন্দপুর থানা এলাকার চৌবাগা ক্যানেল সাইড রোড থেকে পাচারকারীদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল প্রায় তিন কোটি টাকার হেরোইন ও তিন কোটি টাকার ইয়াবা ট্যাবলেট।  

 

আরও পড়ুন, পুলকার দুর্ঘটনা কেড়েছে সন্তানকে, ঋষভের বাবাকে ফোন মুখ্যমন্ত্রীর