Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Newtown Porn Case: দীর্ঘ ১০ মাস পর নিউটাউন পর্ণ কাণ্ডে পুলিশের জালে প্রধান অভিযুক্ত

দীর্ঘ দশ মাস পর নিউটাউন পর্ণ কাণ্ডে পুলিশের জালে প্রধান অভিযুক্ত।  টালিগঞ্জের কাছে রিজেন্ট পার্ক থেকে তাঁকে গ্রেফতার করেছে বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ।  

Police arrested the main accused in Newtown Pornography case RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 24, 2021, 2:54 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দীর্ঘ দশ মাস পর নিউটাউন পর্ণ কাণ্ডে (Newtown Pornography case) পুলিশের জালে প্রধান অভিযুক্ত। সূত্রের খবর, টালিগঞ্জের কাছে রিজেন্ট পার্ক থেকে তাঁকে গ্রেফতার করেছে বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ (Bidhannagar Cyber Crime Police)। পুলিশ সূত্রে খবর, প্রকাশ দাস নামের ওই ব্যক্তি পর্ণ শুটিয়ের (Pornography)মডেল সাপ্লাই করত।

আরও পড়ুন, Newtown Porn Case: মেয়েদেরকে মডেল শুটের টোপ দিত শৌভিকই, নিউটাউন পর্ণকাণ্ডে ধৃত আরও ১

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে পেশায় এক মডেল এক যুবতী বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ করেন। তিনি বয়ানে বলেন যে, এক ব্যক্তির সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচয় হয়েছে তাঁর। রাণীকুচি এলাকায় তাঁর প্রোডাকশন হাউজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই ব্যাক্তি। যুবতীকে টলিউড ইন্ড্রাস্ট্রিতে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন। এই কথায় বিশ্বাস করেই ওই ব্যাক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিন তাঁকে প্রথমে দুটো ছোট কাজ দেন। এরপর বেশ কয়েকজনের সঙ্গে পরিচয় পর্ব চলে। এরপরেই একদিন তাঁকে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট এলাকার একটি হোটেলে নিয়ে গিয়ে মাদক পান করিয়ে জোর করিয়ে পর্ণগ্রাফি করায় বলে অভিযোগ।  বিষয়টি ফাঁস করলে প্রাণনাশের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এবং এরপর বারবার নগ্ন ফটোশুটে বাধ্য করা হয় বলে অভিযোগ।

"

আরও পড়ুন, Covid Vaccination: বছর শেষে সকল প্রাপ্ত বয়ষ্কদের কোভিড টিকা, প্রথম ডোজের লক্ষ্যে রাজ্য

 এদিকে এই পর্ণগ্রাফী শুটিয়ের জাল শুধু নিউটাউনেই নয়, ছড়িয়ে রয়েছে দক্ষিণ কলকাতায় বিস্তীর্ণ এলাকায়। গড়ফা-বালিগঞ্জের স্টুডিওতেও শুটিং চলত।  সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠতি মডেলদের টার্গেট করে তাঁদের বিদেশি কোনও ওটিটি অ্যাপ বা কোনও টেলিভিশনে সুযোগ দেওয়ার নাম করে ডাকা হত। এরপর সেখানেই জোর করে হুমকি দিয়ে পর্ন ভিডিও শুট করা হত। জানা গিয়েছে, নিউটাউনের একটি থ্রি স্টার হোটেলে রমরমিয়ে এই ফাঁদ পেতে বসেছিলেন অভিযুক্তরা। এরপরে তদন্তে নেমে পুলিশ ৪ জনকে গ্রেফতার করে। কিন্তু ডিসেম্বরের পর দীর্ঘ ১০ মাসে মূল অভিযুক্ত অধরা ছিল। এবার তাঁকেও গ্রেফতার করল বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios