সিইএসসি-র বিদ্যুতের মাশুল বৃদ্ধির প্রতিবাদ ঘিরে উত্তাল চেহারা নিল ধর্মতলা। বিজেপির যুব মোর্চার মিছিল রুখতে চলল জলকামান। পুলিসের সঙ্গে ধস্তাধস্তির জেরে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী।

আঁচ পাওয়া গিয়েছিল আগেই। সংসদের অধিবেশন শেষ হলেই রাজ্যে বিজেপি জোরদার আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছিল। বাস্তবে দেখা গেল রাজ্যে সেই পথেই এগোচ্ছে গেরুয়া ব্রিগেড। বুধবার বিজেপি যুব মোর্চার ভিক্টোরিয়া ভবন অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি হয়  ধর্মতলা চত্বরে।  সিইএসসি-র বিদ্যুৎ মাশুলের প্রতিবাদে নামলে এদিন ভিক্টোরিয়া ভবনের সামনে মিছিল আটকায় পুলিশ। আলাদা করে ব্যারিকেড বানায় পুলিশ। কিন্তু বিশাল যুবমোর্চার সামনে মিছিল আটকাতে বেগ পেতে হয় পুলিশকে। এক সময় দেখা যায়,ব্যারিকেড টপকে ঢুকে পড়ছে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে জলকামান চালায় পুলিশ। জলের তীব্রতায় বুকে আঘাত পান বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী।

আরও পড়ুন :বিজেপি অস্বস্তির মধ্যেই সিবিআই দফতরে শোভন, সঙ্গী বৈশাখী

আরও পড়ুন :অনুপ্রবেশকারী হটাতে আগে কী করেছিলন, মমতাকে খোঁচা স্মৃতির


পরে রক্তাক্ত অবস্থায় এক বিজেপি কর্মীকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়। বিজেপি যুব মোর্চার অভিযোগ,মিছিল ছত্রভঙ্গ করতে গুলি চালিয়েছে পুলিশ। চালানো হয়েছে কাঁদানে গ্যাস। যদিও গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেনি বলেই পুলিশ সূত্রে খবর। তবে যুব মোর্চার কর্মীদের হটাতে পুলিশকে লাঠি চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে আন্দোলনকারীরা। সেখানেই যুব মোর্চার দাবি,রাজ্যে বিরোধীদের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিচ্ছে মমতার সরকার। বিদ্যুতের মাশুল বৃদ্ধির প্রতিবাদ করতে গেলেও লাঠির ঘা খেতে হচ্ছে।