হাতে সময় মাত্র কয়েকদিন, এর পরেই বাঙালীর সর্ববৃহৎ উৎসব দুর্গা পূজার প্রারম্ভ। কৈলাস থেকে বাপের বাড়িতে মেয়ের আগমন ঘিরে বহু আগে থেকেই বিভিন্ন বারোয়ারী থেকে সার্বজনীন ক্লাব গুলোতে ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। মেয়েকে বাড়িতে বরণ করার মধ্যেও প্রত্যেকবার নতুনত্বের ছোঁয়া নিয়ে আসে ক্লাবের পুজোগুলি।  চারিদিকে থিম পূজোর রমরমার মধ্যে ব্যতিক্রম এবার বিএ ব্লক। যেখানে সল্টলেকের ৯৫ শতাংশ পুজোই সেজে উঠছে কোনও নির্দিষ্ট থিমের ওপর ভিত্তি করে সেখানে দাঁড়িয়ে এবার সাবেকি ভাবেই সম্পন্ন হতে চলেছে সল্টলেক বি-এ ব্লকের পুজো।

দেখে নিন- নাম লেখাননি এখনও, দেরি না করে অংশ নিন এশিয়ানেট নিউজ শারদ সম্মান ২০১৯-এ

পুজোর চিফ সেক্রেটারি এ. সিনহা জানিয়েছেন এবছর তাদের পুজোর বাজেট ১০ লাখের মতো। মণ্ডপ সজ্জার কাজ শুরু হয়েছে প্রায় একমাস আগে থেকে। ষষ্ঠীর দিন তাদের পুজোর উদ্বোধন, তার অনেক আগেই মণ্ডপ তৈরির কাজ সেরে ফেলতে চাইছেন তারা। উদ্বোধনের দিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ। প্রতিমা থাকবে ৩০ বছর পুরোনা কমিউনিটি হলের ভিতরে। পুজোর সময় মণ্ডপ চত্বরে থাকবে নানানরকম ঝাড়লণ্ঠন। দিনগুলিতে ব্লকের লোকজনকে খাওয়ানোর ব্যবস্থাও থাকছে। 

আরও পড়ুন- সৃষ্টির ৫০ বছরে গুপী-বাঘা ফিরতে চলেছে বিজি ব্লকে

সল্টলেকে ঠাকুর দেখতে এসে থিম পুজোর বাড়বাড়ন্তর মধ্যে যদি হটাৎ স্বাদ বদলাতে ইচ্ছে করে তবে আসতেই পারেন বি-এ ব্লকের এই ঘরোয়া পুজোয়। এই ব্লকের পুজো ছাড়াও এর আশেপাশেই একসঙ্গে দেখে নিতে পারবেন বিজে, বিজি, বিই ব্লকের মতো পুজোগুলিও।