বছর ঘুরে আবার সময় এল ফিরে। এক বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আবার আসছে মা। প্রকৃতিও জানান দিচ্ছে মা আসছে। শরতের নীল মেঘ আর শিউলির গন্ধ যেন তারই আগমণ বার্তা দিচ্ছে। সেই সঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে তার প্রস্তুতিও। ওলিতে-গোলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে প্যন্ডাল। কুমার টুলিতে প্রতিমা তৈরির কাজও প্রায় শেষ। সেই সঙ্গে সমস্ত পুজো কমিটির থিম পুজোর প্রস্তুতিও এখন তুঙ্গে। 

দেখে নিন- নাম লেখাননি এখনও, দেরি না করে অংশ নিন এশিয়ানেট নিউজ শারদ সম্মান ২০১৯-এ

প্রায় ৫০ বছর আগে সত্যজিৎ রায় সৃষ্টি করেছিলেন গুপী-বাঘা নামক চরিত্র দুটি। এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া ভার যারা চরিত্র দুটিকে ভালোবাসতে পারেনি। তাই নিজেদের ৩৫ তম বর্ষে থিম হিসাবে গুপী-বাঘা কেই বেছে নিয়েছে সল্টলেক বি-জি ব্লকের পুজো উদ্যোক্তারা।  পুজোর সেক্রেটারী মিসেস মুখার্জি জানিয়েছেন তাদের পুজোর ৩৫ তম বর্ষে তাদের থিমের ট্যাগলাইন "অর্ধশতক হলো পার, বিজি ব্লকে গুপী বাঘা এবার। তিনি আরও জানিয়েছেন এবারে সব মিলিয়ে তাদের পুজোর বাজেট ১৮ লক্ষ টাকা। 

আরও পড়ুন- কচিকাঁচাদের পছন্দের কাল্পনিক চরিত্ররাই এবার ভরসা বিজে ব্লকের

শিল্পী অমল পালের তত্ত্বাবধানে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। এছাড়া আর্টস কলেজের ছাত্ররা মণ্ডপ সজ্জার কাজ করছেন। সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই কাজ মোটামুটি ভাবে শেষ করে ফেলতে চাইছেন পুজো উদ্যোক্তারা। পুজোর দিন গুলি থাকছে নানাবিধ প্রোগ্রাম এবং সকলকে খাওয়ানোর ব্যবস্থা। এবারের পুজোয় গুপী-বাঘা কে ফিরে আসতে দেখতে চাইলে তাই আসতেই হবে সল্টলেক বি-জি ব্লকের এই দুর্গাপুজো মণ্ডপে।