শহরে ফের একাকী বৃদ্ধের অপমৃত্যু। শনিবার সন্ধ্যায় গল্ফ গ্রিনের ফেজ ২-এর একটি বহুতল থেকে বৃদ্ধের পচাগলা দেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ জানায়, মৃতের নাম বালসুহ্মণ্যম শ্রীনিবাসন। বয়স হয়েছিল আশি বছর। তবে কী কারণে ওই বৃদ্ধের মৃত্য়ু হয়েছে তা এখনও পুলিশের তরফে জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলেই আসল কারণ জানা যাবে।

আরও পড়ুন, বেতন বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করল বিদ্যুৎ দপ্তর, নয়া বেতনক্রমের আওতায় অবসরপ্রাপ্তরাও


সূত্রের খবর, জানা গিয়েছে  বালসুহ্মণ্যম শ্রীনিবাসনের আসল বাড়ি দক্ষিণ ভারতে। ফ্ল্যাটের বাথরুমের সামনে তাঁকে চিৎ হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়। তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান, অন্তত দিন চারেক আগে মৃত্যু হয়েছে বৃদ্ধের। শনিবার দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয়রা খবর দেন যাদবপুর থানায়। আবাসনের অন্য বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পারে, ফ্ল্যাটে বৃদ্ধ একাই থাকতেন। দিন চারেক তাঁকে ঘর থেকে বেরোতে দেখা যায়নি। পুলিশ জানায়, ফ্ল্যাটের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ ছিল। তাই দরজা ভেঙেই  পুলিশ  ওই বৃদ্ধের দেহ উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন, ফেসবুক লাইভে আত্মহত্যার চেষ্টা, বন্ধুর ১০০ ডায়ালে যুবকের প্রাণ বাঁচাল পুলিশ

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আবাসনের রেজিস্ট্রেশন খাতায় বৃদ্ধ তাঁর পরিবারের অন্য কোনও সদস্যের নাম রেজিস্টার করেননি। তাই পরিবারের কাউকে শনিবার রাত পর্যন্ত খবর দেওয়া যায়নি। বৃদ্ধের মোবাইল ফোনটিও সুইচড্‌ অফ ছিল। মোবাইল ঘেঁটেই আত্মীয়-বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে। কলকাতা পুলিশের ডিসি (এসএসডি) প্রদীপকুমার যাদব জানিয়েছেন, 'আমরা জানতে পেরেছি ওই বৃদ্ধের এক মেয়ে রয়েছেন। তিনি চেন্নাইয়ে থাকেন। তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি আমরা। মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত পরিষ্কার করে কিছু বলা সম্ভব নয়। তবে কোনও রহস্য রয়েছে বলে এখনও পর্যন্ত মনে হচ্ছে না।'

আরও পড়ুন, ফের দাম বাড়ল পেট্রোল-ডিজেলের, ভেস্তে গেল ছুটির দিনে লং ড্রাইভের প্ল্য়ান