৬১১ থেকে এক লাফে ৬৪৯। মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্য়েই রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া লাফিয়ে বেড়ে গেল। যদিও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার সংখ্যা থমকে সেই ১০৫-এ। সব মিলিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০। এমনই জানাচ্ছে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য় মন্ত্রকের সোমবারের রিপোর্ট।

বাবুলের কথা এবার চিকিৎসক সংগঠনের মুখে,করোনায় মৃত্যু স্বাস্থ্য়কর্তার -স্বীকার করুক রাজ্য.

যদিও কেন্দ্রের এই সংখ্য়ার সঙ্গে মিলছে না রাজ্য়ের পরিসংখ্যান। নবান্নের হিসেব বলছে,গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্য়ে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। রাজ্য়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬১।  রবিবার রাজ্যের বুলেটিন থেকে এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে। রিপোর্ট বলছে, নতুন  করে রাজ্য়ে করোনায়  আক্রান্ত হয়েছেন ৪০ জন। 

৩ মে'র পর ২ সপ্তাহ ধরে উঠে যাক লকডাউন, এমনই চান নাগরিক মমতা.

নতুন করে কেউ সুস্থ হয়ে বাড়ি না ফেরায় ১০৫ জনই এখনও পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছেন। শুক্রবারই রাজ্য়ের মুখ্য়সচিব রাজীব সিনহা জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত রাজ্য়ে  করোনা পাওয়া গিয়েছে এরকম মৃতের সংখ্যা ৫৭। যদিও এদের মধ্য়ে কেবল ১৮ জনই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন। অন্য কারণে মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের৷ তবে এদের প্রত্যেকের করোনা পজিটিভ ছিল৷  

মমতার শোকজ্ঞাপনে নেই করোনায় মৃত্য়ুর উল্লেখ, স্বাস্থ্য় কর্তার মৃত্যুতে মমতার নিন্দা বাবুলের..

সোমবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী,পশ্চিমবঙ্গে এখনও পর্যন্ত ৬৪৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন৷ বাংলায় করোনায় এখনও পর্যন্ত ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ একদিকে সংক্রমণ যেমন বাড়ছে উল্টোদিকে সুস্থও হচ্ছেন অনেকে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে এখনও পর্যন্ত ১০৫ জন করোনামুক্ত হয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

এদিকে রাজ্য়ে করোনায় মৃতের সংখ্য়া লুকোনোর অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। রেশন দুর্নীতি নিয়ে রবিবারই মৌন প্রতিবাদে বাড়িতে বসেছেন রাজ্য় বিজেপির নেতারা। লকডাউনের মতো সময় শাসক দলের নেতারা রেশন লুঠ করছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ বাহিনী।