চোর সন্দেহে ফের গণপিটুনির শিকার হলেন যুবক। বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে চলল বেধড়ক মারধর। শেষপর্যন্ত মারাও গেলেন তিনি। রেহাই পাননি মৃতের এক বন্ধুও! তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। মূল অভিযুক্ত পলাতক। ঘটনাস্থল, কলকাতা লাগোয়া নিউটাউন।

আরও পড়ুন:করোনা আক্রান্ত কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালের ৭ স্বাস্থ্য কর্মী , না জেনেই যাতায়াত বাসে

ঘটনার সূত্রপাত দিন চারেক আগে। নিউটাউনের গৌরাঙ্গনগর নতুব পল্লি এলাকায় এক ব্যক্তি টোটোর ব্যাটারি চুরি হয়ে যায়।  কে চুরি করল? জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার ভোরে বাসুদেব হালদার নামে এলাকারই এক যুবকের বাড়িতে চড়াও হন বেশ কয়েকজন। জোর করে ওই  যুবককে বাড়ির বাইরে নিয়ে আসে তাঁরা। ধাক্কা মেরে সরিয়ে দেওয়াই শুধু নয়, বাধা দিতে গেলে পরিবারের লোককে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজও করা হয় বলে অভিযোগ। তারপর? আক্রান্তের বাড়ির লোকেদের দাবি, কিছুটা দূরে নিয়ে গিয়ে বাসুদেব ও তাঁর বন্ধু বাঁশ ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করেন হামলাকারীরা। শেষপর্যন্ত প্রতিবেশীদের সহায়তায় কোনওমতে আক্রান্তদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে। সেখান থেকে বাসুদেবকে কলকাতা আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের লোকেরা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: শীঘ্রই খুলছে কালীঘাট মন্দির, দর্শনার্থীদের সুরক্ষা দিতে বসছে স্যানিটাইজিং চ্যানেল

ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ। তাদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছেন তদন্তকারীরা। তবে এখনও পর্যন্ত মূল অভিযুক্ত নাগাল পাওয়া যায়নি। ওই ব্যক্তি-সহ বাকি সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।