কানে হেডফোন দিয়েই থাকতে পছন্দ করেন অনেকেই। সেই অভ্যাস কাটিয়ে উঠতে না পরলে অনেক সমস্যারই সন্মুখীন হতে পারেন। তাই প্রয়োজন ছাড়া কিংবা অবসরে ব্যবহার করুন হেডফোন। শরীরের দিক থেকে এবং মানসিক দিক থেকে সমস্যার সন্মুখীন না হতে চাইলে হেটফোন ব্যবহার নিয়ে সচেতন হওয়া শুরু করুন।

দীর্ঘদিন শরীরকে রোগ মুক্ত রাখতে চান! মেনে চলুন কয়েকটি নিয়ম

 জানুন হেডফোন ব্যবহার করলে কী কী সমস্যার সন্মুখীন হতে হয়ঃ
১) পথে ঘাটে বিপদরে ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে হেডফোন। রাস্তায় কানে হেটফোন দিয়ে চলার জন্য দুর্ঘটনার সম্ভাবনা কী হারে বেড়ে চলেছএ তা নিয়ে অনেকেই নজর রাখেন না। তাই পথে ঘাটে এড়িয়ে চলুন হেডফোন।
২) কানে ইনফেকশন হতে পারে হেডফোন যদি অন্যকারুর সঙ্গে শেয়ার করা যায়। তাই হেডফোন নিজের কাছেই রাখুন। তা দিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক না পাতানই ভালো। 
৩) শ্রবণ ক্ষমতা কমে যাওয়া। একটা সময়ের পর কানের অভ্যাসে পরিণত হয় জোড়ে শোনা। যার ফলে অন্য সময় আস্তে কথা বললে বলা কম শব্দ কানে ঠিক মতন প্রবেশ করে না। 
৪) দীর্ঘক্ষণ কানে হে়ফোন ফোন গুঁজে রাখা থাকলে কাছে চাপ সৃষ্টি হয়। যা থেকে শ্রবণ ক্ষমতা হারাতে হতে পারে। তাই প্রতি এক ঘন্টায় একবার অন্তত কান থেরে হেডফোন খুলে রাখুন।
৫) মনসংযোগ নষ্ট হতে পারে। কোনও একটি কাজ করার সময় সম্পূর্ণ মনসংযোগ সেই দিকেই রাখা প্রয়োজন। একটি ইন্দ্রিয়কে যদি অন্যকাজে ব্যস্ত রাখা হয়, তবে তা থেকে কাজের প্রতি মনোসংযোগ কমে অনেকটা।