কাজের চাপে হোক বা স্বভাব বশত, যে কোনও ক্ষেত্রেই যখন সাল লিখতে হয়, অনেকেই বছরের জায়গাটিতে শেষ দুটি সংখ্যা লিখে থাকেন। যেমন ২০১৯ এর বদলে শুধু ১৯। ২০১৮ এর বদলে ১৮। কিন্তু চলতি বছরে এমনটি করলে ঘটতে পারে বিপত্তি। কারণ এই বছর বিশে বিশ। দুই বিশে মিলে মিশে একাকার হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। 

বিষয়টা একটু খুলে বলা যাক। যদি কেউ লিখে ফেলেন বছরের শেষ দুই সংখ্যা ২০, তাহলেই সমস্যার সন্মুখীন হতে হবে অনেককেই। এই ২০-এর পেছনে কেউ বসিয়ে দিতেই পারেন ১০ থেকে ১৯ পর্যন্ত যে কোনও একটি সাল। যার ফলে জালিয়াতি হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি। সেই ক্ষেত্রে বেশ কিছু সাবধানতা অবলম্বণ করা একান্ত প্রয়োজন। 

আরও পড়ুনঃ রাজকোষে টান, ঘাটতি মেটাতে টেলিকম সংস্থার বকেয়ায় নজর মোদী সরকারের

জন্মের সাল থেকে শুরু করে ব্যাঙ্ক, আইনের কাগজপত্র, ডাক্তারের কাজগ, যেকোনও জরুরী তথ্যে এই বছর তাই সালের জায়গাটিতে চারটি ঘরই পূরণ করুন। কোথাও কোনও ফাঁক থাকলেই বড় সড় সমস্যার সন্মুখীন হতে পারেন বহু মানুষ। লোনের ক্ষেত্রেও একইভাবে সতর্কতা অবলম্বণ করুন। যেন কোথাও কোনও খামতি না থাকে। একটা সুযোগ ছাড়া মানেই যে সেটা জালিয়াতির শিকার এমনটাও নয়, তা বিভ্রান্তিরও সৃষ্টি করতে সক্ষম।