ত্বক নিয়ে আমাদের প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু সমস্যা রয়েছে। কারও তৈলাক্ত ত্বকের সমস্যা কারও আবার রুক্ষ তো কারও নর্মাল। প্রত্যেক ত্বকেরই রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন সমস্যা। আর ত্বকের সমস্যা মানেই বিজ্ঞাপণের চমকে বাজার চলতি কেমিক্যাল প্রোডাক্টের ব্যবহার। তবে ত্বকের যত্ন গভীর ভাবে নিতে আর ত্বকের সমস্যা গোড়া থেকে নির্মূল করতে রাসায়নিক নয় শুরু করুন ঘরোয়া প্রতিকার। কেমিক্যাল প্রোডাক্টগুলি ক্ষণিকের জন্য ত্বকের জৌলুস বাড়িয়ে দিলেও আখের গোপনে আপনার ত্বকের ক্ষতি করে চলেছে। আর ঘরোয়া পদ্ধতিতে আপনি ফল পাবেন তবে হাতনাতে নয়। এর জন্য আপনাকে সময় দিতে হবে। যা ভবিষ্যতেও আপনার ত্বক রাখবে কোমল ও লাবন্যময়। তাই বাজারচলতি প্রোডাক্টের দিকে না ঝুঁকে বাড়িতেই বানিয়ে নিন ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য ফেস ওয়াস ও ফেয়ারনেস মাস্ক।

আরও পড়ুন- ব্ল্যাকহেডসের সমস্যায় ভুগছেন, রইল অবর্থ্য ৫ ঘরোয়া টোটকা

ফেসওয়াস- বাড়িতে ফেসওয়াস এর জন্য ব্যবহার করুন পাকা পেঁপে। এটি ভালো করে ঘষে নিয়ে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা মধু আর ২-৩ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ দিয়ে ভালো করে মেশান। মুখে ভালো করে লাগিয়ে নিন আর ৩০ মিনিট পর ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিন। এই পদ্ধতিতে মাত্র ১ মাস ব্যবহার করলেই ত্বকের পার্থক্যটা আপনি বুঝতে পারবেন। 

আরও পড়ুন- অয়েলি স্কিনের সমস্যা, ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিন এখন থেকেই

ফেসমাস্ক- আপনি যদি কাঁচা ডিমের গন্ধ সহ্য করতে পারেন তাহলে আপনি ডিমকে ফেয়ারনেস্ মাক্স হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য ডিমের সাদা অংশ মুখে লাগিয়ে শুকোতে দিন। পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে উপর থেকে আরেকটা কোট দিয়ে শুকিয়ে নিন। তারপর ঠান্ডা জলে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন। ত্বকের ডেড সেল উঠে যাবে। সেই সঙ্গে ডিমে থাকা পুষ্টিগুন আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করবে। ডিম ছাড়া কাঁচা দুধ ত্বকের জন্যে খুবই অপরিহার্য একটি উপাদান। কাঁচা দুধও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে। ফেয়ারনেস মাস্ক বানানোর জন্য বেসন, এক চিমটে হলুদ গুঁড়ো আর জাফরান মেশান, এর মধ্যে কাঁচা দুধ দিয়ে একটা ঘন পেস্ট তৈরী করুন। মুখে লাগিয়ে ২০-৩০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত ৩দিন এই প্যাক ব্যবহার করুন তফাৎটা নিজেই বুঝতে পারবেন।