আলোর রোশনাইয়ে সেজে উঠেছে গোটা শহর। বর্ষশেষের এই উৎসবের জন্য মুখিয়ে থাকে ছোট থেকে বড় সকলেই। আর মাত্র কয়েকটা দিন তারপর বাঙালির প্রিয় ক্রিসমাস উৎসব। গোটা একসপ্তাহ ধরে চলবে এই উৎসব। তারপরেই পুরোনোকে বিদায় জানিয়ে নতুনকে আগমনের পালা। আর এই উৎসবের মাঝে পার্টি, অনুষ্ঠান তো রয়েছেই। আর অনুষ্ঠান মানেই সকলের মধ্যমণি হওয়া। নতুন বছর উদযাপনে উৎসবের মরশুমে কীভাবে নিজেকে হটকে লুক দেবেন রইল তার টিপস।

আরও পড়ুন-কারও আনে জিভে জল কারওবা চোখে, জেনে নিন কাঁচা লঙ্কার উপকারিতা...

প্রথমেই যেটা করবেন সেটা হল ক্লিনজিং, তারপর টোনিং, সবশেষে ময়েশ্চারাইজিং। এরপর ত্বকের টোন অনুযায়ী কনসিলার দিয়ে চোখের দাগ ঢেকে নিন। এরপর স্কিন টোন অনুযায়ী মুখের বেস মেকআপ করে নিন। তারপর মুখে ফেস পাউডার লাগিয়ে নিন। চাইলে গ্লিটার সিমারও লাগাতে পারেন। এবার হল চোখের পালা। চোখ হল সাজের সবথেকে প্রধান অঙ্গ। চোখকে বিভিন্ন ভাবে সাজাতে পারেন। স্মোকি আই এখন ফ্যাশন ট্রেন্ড। আপনি অনায়ায়েই ট্রাই করতে পারেন। ক্রিসমাস পার্টিতে নজর কাড়তে নীল, সবুজ, সিলভার, গোল্ডেন গ্লিটার শ্যাডোও অনায়াসেই লাগাতে পারেন। এতে অনেক বেশি গর্জিয়াস লাগবে। চোখের আইলাইনার লাগানোর ক্ষেত্রে একটু সর্তকতা অবলম্বন করা কিন্তু দরকার। এখন বিভিন্ন স্টাইলের আইলাইনার পরার চল রয়েছে। মুখের সঙ্গে মানানসই করে লাগিয়ে নিন। চাইলে আইল্যাশও লাগাতে পারেন। মাসকারা লাগাতে ভুলবেন না যেন। ঠোঁটের ক্ষেত্রে হালকা রং রাখাটাই ভাল। চাইলে গাঢ় রঙের লিপস্টিক পরতে পারেন। ম্যাট লিপস্টিকও ফ্যাশনে ইন। সাজের সঙ্গে মানানসই করে ম্যাট লিপস্টিকও পরতে পারেন যা আপনার লুককে আরও বেশি আকর্ষণীয় করে তুলবে।

আরও পড়ুন-কর্মক্ষেত্রে সমস্যা, নতুন বছরে মেনে চলুন এই ৫ রেজোলিউশন...

এ তো হল মেক আপের কথা। কিন্তু পোশাক। ক্রিসমাস পার্টি হোক বা নিউইয়ার পার্টি, এই সময় একটু অন্য ধরনের পোশাকই যেন সকলের থেকে আপনাকে আলাদা করে তুলতে পারে। এখন লং, শর্ট সবধরনের ফ্রক ফ্যাশনে ইন। উজ্জ্বল রঙের যে কোনও একটি অনায়াসে ট্রাই  করতে পারেন। ফিউশন ও ট্র্যাডিশন লুক আনতে চাইলে একটু অন্য কিছু ট্রাই করতে পারেন। শীতের সন্ধ্যায় নজর কাড়তে জিন্সের সঙ্গে ডেনিমের জ্যাকেটও ট্রাই করতে পারেন। ক্রপ টপও ফ্যাশনে ইন। বয়ফ্রেন্ড জিন্সের সঙ্গেও ক্রপ টপ পড়লে কিন্তু পার্টির মধ্যমণি আপনিই হবেন। এছাড়া পালাজোর সঙ্গে অফ শোল্ডার টপও পড়তে পারেন। জামাকাপড়ের সঙ্গে চুলটা কিন্তু মানানসই না হলে পুরো সাজটাই বৃথা। পার্টির নজরকাড়া লুক আনতে পোশাকের সঙ্গে মানানসই চুল বাধতে ভুলবেন না। চুল বাধার উপরেই মুখের সৌন্দর্য নির্ভর করে। প্রত্যেকের মধ্যেই আলাদা আলাদা সৌন্দর্য রয়েছে। সেই প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে বজায় রেখেই সাজা উচিত।