শীতকাল আসলেই অনেকেই জুতোর সমস্যায় ভুগতে থাকেন। জুতো পরলেই পা ঘামতে থাকে। আর পায়ের দুর্গন্ধের জেরে জুতো পরা অনেকেই এড়িয়ে চলেন। কিন্তু শীতকালে পা ঢাকা জুতো পরাই সবচাইতে ভাল। এতে পা যেমন পরিস্কার থাকে, তেমনই ধুলো-বালি থেকেও পা -কে সুরক্ষিত রাখা যায়। ঘেমে যাওয়া পায়ে খুব তাড়াতাড়ি ব্যাকটেরিয়া জন্মায়। যার ফলে পায়ে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। কিন্তু দুর্গন্ধের জন্য জুতো পরবেন না এটা কিন্তু মেনে নেওয়া যায় না। অস্বস্তিকর পরিস্থিতি থেকে খুব সহজেই নিস্তার পাওয়া যায়। কিন্তু কীভাবে? রইল পায়ের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তির কয়েকটি হদিশ।

আরও পড়ুন-কার হাত ধরে কলকাতায় প্রথম বিরিয়ানি আসে, জানেন কি...

প্রথমত শীতকালে সবার আগে পা পরিস্কার রাখুন। বাড়ি ফিরে গরম জলে একটু নুন দিয়ে ফুটিয়ে নিন। সেই জলে পা ডুবিয়ে রাখুন। এতে পায়ে ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে না এবং দুর্গন্ধও হয় না।

মোজা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্তক হোন। সিন্থেটিক নয়, সুতির মোজা ব্যবহার করুন। একই মোজা না ধুয়ে পরপর দুদিন ব্যবহার করবেন না।

জুতো নিয়মিত রোদ দিন। সপ্তাহে একবার সুগন্ধি কোনও পাউডার দিয়ে জুতো মুছে নিন।

ঘন ঘন চা, কফি খাবেন না।

মশালাদার যুক্ত খাবার যতটা পারবেন এড়িয়ে চলুন।

জুতোর ভিতরে খানিকটা বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। এতে পা পরিস্কার থাকে, এবং ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে দেয় না।

আরও পড়ুন-শীতের ডায়েটে অবশ্যই পাতে রাখুন ব্রকোলি, জেনে নিন এর গুনাগুণ...

কৃত্রিম চামড়ার জুতো পরলে পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার প্রবণতা বাড়ে।

অনেকক্ষণ একটানা জুতো ব্যবহার করলে পা ভ্যাপসা হয়ে যায়, তাই মাঝেমধ্যে জুতো খুলে হাওয়া লাগান।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান দিয়ে নিয়মিত পা পরিস্কার রাখুন।

ভেজা পায়ে জুতো, মোজা কখনওই পরবেন না , তার ফলেও পা থেকে দুর্গন্ধ হয়।

শীতকালে পা পরিস্কার করে ভাল ময়েশ্চারাইজার লাগান।