গরমের দিনে ঘামাচি একটি অতি পরিচিত সমস্যা। এর ফলে ত্বকে লাল লাল ছোট ছোট র‍্যাশ দেখা দেয়, যার ফলে শরীরে চুলকানি অনুভব হয়ে থাকে। বাচ্চা থেকে বয়স্ক কম-বেশি সকলেই গরমের দিনে ঘামাচির সমস্যায় ভুগে থাকেন। ঘামাচি প্রতিরোধ করতে বাজারে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের প্রিকলি হিট পাউডার পাওয়া যায়। কিন্তু এবার সেসব দূরে রেখে ঘরে বসেই কিছু প্রাকৃতিক উপায়ের সাহায্যেই পেয়ে যেতে পারেন ঘামাচি থেকে মুক্তির উপায়। 

১)বেকিং সোডা- ঘামাচি নিরাময়ে বেকিং সোডা খুবই কার্যকরী। ১ কাপ ঠাণ্ডা জলে ১-চা চামচ বেকিং সোডা ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার একটি পরিষ্কার রুমাল ওই জলে ভিজিয়ে নিয়ে সেটি, ঘামাচি আক্রান্ত জায়গায় কিছুক্ষন লাগান। কয়েকদিন এমন করলে ঘামাচি থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যাবে।

২)নিম পাতা- নিমপাতা অ্যান্টিসেপ্টিক। এছাড়া তাতে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান, যা ঘামাচি নিরাময়ে নিমপাতা খুবই কার্যকর। এর জন্য প্রথমে নিমপাতা ভালোভাবে বেটে নিতে হবে। এবার তার সঙ্গে খানিকটা জল মিশিয়ে নিয়ে মিশ্রণটি ঘামাচি আক্রান্ত জায়গায় লাগাতা হবে। মিশ্রণটি ত্বকের ওপর সম্পূর্ণ শুকিয়ে গেলে তা ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এক সপ্তাহের মধ্যে ঘামাচি কমে যাবে। 

৩)চন্দন ও গোলাপ জল-  খানিকটা সাদা চন্দন বেটে নিয়ে তার সঙ্গে পরিমাণ মতো গোলাপ জল মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এবার সেই মিশ্রণটি ঘামাচির স্থানে দিনে একাধিকবার করে লাগালে কিছুদিনের মধ্যেই ঘামাচি দূর হয়ে যাবে। 

৪)অ্যালোভেরা-  ত্বকের যেকোনও সমস্যা দূর করতে অ্যালোভেরার কোনও তুলনা নেই। অ্যালোভেরার মধ্যে থেকে  জেল জাতীয় উপাদান বের করে নিয়ে তা সরাসরি ঘামাচির উপরে লাগিয়ে নিতে পারেন। এরপর তা শুকিয়ে এলে ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। ফল পাবেন ম্যাজিকের মতো। 

এই গরমে স্ক্যাল্পের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাবেন কীভাবে

স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ইদের মরশুমে চেখে দেখুন এইসব বাহারি খাবার

ডেস্কে বসে একভাবে কাজ করেন- জেনে নিন কী কী সমস্যা ডেকে আনছেন

৫)মুলতানি মাটি- এমনিতে ত্বকের ঔজ্জল্য বৃদ্ধিতে মুলতানি মাটি অত্যন্ত প্রাচীন একটি উপাদান। তবে এর পাশপাশি ঘামাচির সমস্যা দূর করতেও সাহায্য করে মুলতানি মাটি। এর জন্য ৪-৫ চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে ২-৩ চামচ গোলাপ জল এবং সেইসঙ্গে পরিমাণ মতো জল মিশিয়ে নিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন, তারপর সেটি ওই ঘামাচি আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে তা ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। ফল পাবেন হাতেনাতেই। 

৬)বরফ ও ঠান্ডা জল- গরমের দিনে প্রায় সকলের বাড়িতেই ঠান্ডা জল মজুত থাকে। দিনের যে-কোনও সময়ে যখনই সময় পাবেন বরফের কিউব ঘামাচির স্থানে লাগিয়ে নিন। পাশাপাশি ঠান্ডা জলে একটি সুতির রুমাল ভিজিয়ে নিয়ে থেকে থেকে ঘামাচির ওপর লাগান। আরাম পাবেন।