শীতকাল হোক বা গরম কাল ফ্রিজ ছাড়া একমুহূর্ত যেন চলে না। ফ্রিজ ছাড়া দিনযাপন এটা যেন কোনও ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কিন্তু এর যেমন অনেক ভাল গুণ রয়েছে তেমনি খাবারের স্বাস্থ্য ভাল রাখতেও এর যত্ন করা বিশেষ প্রয়োজন। ফ্রিজের যত্ন না নিলে খাবার এবং স্বাদ দুই-ই নষ্ট হতে পারে। খুব বেশি কষ্টসাধ্যের ব্যাপার তা কিন্তু নয়, কাজের ব্যস্ততার মধ্যে সামান্য একটু  সময় বার করে এর যত্ন নিলেই ফ্রিজ থাকবে নতুনের মতোন।

আরও পড়ুন-চুল ঝড়ে যাচ্ছে, সমস্যা মেটান সহজ এই ঘরোয়া পদ্ধতিতে...

নিয়মিত পরিষ্কার করুন

ফ্রিজ নিয়মিত পরিষ্কার করা কারোর পক্ষেই সম্ভব হয় না। কিন্তু ফ্রিজ ঠিকমতো পরিষ্কার না করলে তার থেকেই স্বাস্থ্যহানি হতে পারে। তাই মাঝেমধ্যেই ফ্রিজ পুরো খালি করে জলের মধ্যে ভিনিগার মিশিয়ে  ভাল করে ফ্রিজের ভিতরটা মুছে নিন। মোছার পর সঙ্গে সঙ্গেই খাবর রাখবেন না। পুরো শুকিয়ে গেলে তারপর রাখুন। এমনকী বেশ কিছুক্ষণ ফ্রিজের দরজা খুলে রাখুন।

দরজা বন্ধ রাখুন

অনেকেই আছেন ফ্রিজ থেকে কিছু বের করার সময় সঠিক ভাবে দরজা বন্ধ করেন না। আর এই কারণের জন্যই একবারের কাজ আবারও করতে হয়। আর তখনই দেখা যায় ফ্রিজ বন্ধ হয়নি। এর ফলে ফ্রিজের ক্ষতি হয়।

সঠিক তাপমাত্রা

ফ্রিজের ভিতরের তাপমাত্রা ঠিক রাখা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। রেগুলেটর সেট করে ৩৭-৪০ ডিগ্রি ফারেনহাইটের মধ্যে তাপামাত্রা রাখুন। এর ফলে খাদ্যগুণ নষ্ট হয় না। এবং খাবারও অনেকদিন পর্যন্ত ভাল থাকবে।

বাইরের যত্ন করুন

শুধু ভেতর পরিষ্কার করলেন তা কিন্তু নয়, ভিতরের মতোন বাইরেটাও ভাল করে যত্ন করুন। কলিন দিয়ে হালকা করে মুছে নিতে পারেন। রোজ না মুছতে পারলেও আলগা ধুলোটা ঝেড়ে নিন।

ফ্রিজের পিছনটা পরিষ্কার করুন

কিছুদিন বাদে বাদে ফ্রিজের পিছনের বৈদ্যুতিন যন্ত্রপাতিতে জমে থাকা ধুলো পরিষ্কার করে নিন। তবে পরিষ্কার করার আগে অবশ্যই বিদ্যুৎ বন্ধ করে নেবেন।

আরও পড়ুন-গর্ভাবস্থায় কোন কোন ফল ডেকে আনতে পারে মারাত্মক বিপদ, জেনে নিন...  

ফ্রিজ ফাঁকা রাখবেন না

ফ্রিজ কখনওই ফাঁকা রাখবেন না। কারণ যখনই ফ্রিজের দরজা খুলবেন বাইরের গরম হাওয়া ভিতরে ঢুকে ফ্রিজের কার্যক্ষমতা নষ্ট করে দেয়। সবসময় রান্না ঢাকা দিয়ে রাখবেন।

পাতিলেবু রাখুন

একটানা ফ্রিজ ব্যবহার করতে করতে ফ্রিজ থেকে গন্ধ বেরোয়। তাই গন্ধ আটকাতে ফ্রিজের মধ্যে কয়েকটা পাতিলেবু রেখে দিন। এতে বাজে দুর্গন্ধ দুর হবে।