কথায় আছে বয়স তো সংখ্যা মাত্র।  প্রেমে পড়ার সময়েও কেউ বয়সের দিকে নজর দেয় না। কয়েক বছর বা মাসের পার্থক্য থাকলেও সেটা সেভাবে সম্পর্কে প্রভাব ফেলে না। অনেকে আছেন যাঁরা বয়সে বড় মহিলাদের প্রেমে পড়েন। সমাজ বাঁকা চোখে তাকালেও, সেদিকে ভ্রুক্ষেপ না করাই ভালো। কিন্তু বয়সে যদি প্রেমিকা বড় হয় তাঁর ম্যাচিওরিটি লেভেলেও তেমনই হবে। তাই বয়সে বড় প্রেমিকার সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করার আগে নিজেকে কয়েকটি জিনিস বুঝিয়ে নিতে হবে। না হলে সম্পর্কে গিয়ে আপনি বাচ্চা ছেলে হয়েই থেকে যাবেন। প্রেমিক হয়ে উঠতে পারবেন না। 

তা হলে জেনে নিন, ঠিক বয়সে বড় মহিলার সঙ্গে প্রেম করতে গেলে কী কী বিষয় মাথায় রাখবেন- 

১) আত্মবিশ্বাসের অভাব থাকলে ওদিকে হাত বাড়াবেন না। নিজের স্থান নিয়ে খুব ওয়াকিবহল থাকতে হবে। নিরাপত্তাহীনতা নামক শব্দটা বাদ দিয়ে দিতে হবে। নিজের কী চান, কী করছেন সমস্তটা পরিষ্কার করে জেনে নিন আগে। তার পরেই প্রেমিকাকে জানতে জান। শিরদাঁড়া একেবারে দৃঢ় রাখতে হবে। চোখে চোখ রেখে কথা বলতে জানতে হবে। দেখবেন প্রেমিক হতে গিয়ে আপনি তার ছেলে না হয়ে যান! 

২) বয়সে বড় মহিলা মানে তিনি কিন্তু স্বাধীনচেতাই হবেন। তাই আপনিও নিজের স্বাধীনতা কতটা দায়িত্বের সঙ্গে পালন করেন তা দেখুন। নিজের কাজ নিজে করুন। তাঁকেও স্পেস দিন। নিজের কাজের ব্যাপারে আপনি নিষ্ঠাবান হলে তা মহিলাদের কাছে আকর্ষণীয় হবেই। ভিডিও গেম আর মোবাইলে অকারণে ডুবে থাকবেন না। প্রেমিকাকে গুরুত্ব দিন। কিন্তু বুঝিয়ে দিন আপনার কাজ ও বন্ধুবান্ধবও ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। সারাদিন তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করবেন না। তাঁকে স্পেস দিন। 

আরও পড়ুনঃ প্রেম করলেও, বিয়ে করতে চান না সঙ্গী! পরিস্থিতি সামাল দিতে কী করবেন

৩) তিনি বয়সে বড় মানে সব কিছুর দায়িত্ব নেবেন এটা করবেন না। নিজেও কাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে এগিয়ে গিয়ে দায়িত্ব নিন। যৌনতার ক্ষেত্রেও, নিজেই উদ্যোগ নিন। তবে কোনও কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হলে অবশ্যই তাঁকে জিজ্ঞাসা করুন। 

৪) আপনার বয়স কম। তাই আপনার এনার্জিও বেশি। নিজের লক্ষ্যে পৌঁছনোর জন্য আপনি কতটা খাটতে পারেন তা বুঝিয়ে দিন। বয়সে বড় মহিলারা আপনার গুণ দেখেই আপনার প্রেমে পড়বেন। আপনি কেমন দেখতে বা কোন ব্র্যান্ডের পোশাক পরেন তা গুরুত্বপূর্ণ নয়। ৫) সমবয়সি মহিলার সঙ্গে যেভাবে কথা বলতে হয় সেভাবেই বলুন। কথায় কথায় তাঁকে বোঝাবেন না তিনি বয়সে বড়। বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলুন। বার বার বয়স কথার মাঝখানে আনবেন না। 

৬) তবে বয়সে বড় মানে তিনিই সব সময়ে ঠিক এটা ভাববেন না। তাঁরও ভুল হতে পারে। সেটা তাঁকে বুঝিয়ে বলুন। তাঁর কথা মতো ওঠাবসাও করবেন না তিনি বয়সে বড় বলে। নিজেকে পাল্টে ফেললে নিজের সঙ্গে অসততা করা হবে।