ছেলেদেরও ব্রেস্ট  ক্যান্সার হতে পারে। অনেকেই এটা ভেবে নিতে পারেন না, যে এমনটাও হতে পারে। এটা ঠিক নারীর তুলনায় , পুরুষের ব্রেস্ট  ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্য়া কম। তবে পুরুষের ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ক্ষেত্রে খুব জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। যার ফল রীতিমত খারাপ। দেশের বড় শহরগুলিতে স্তন  ক্যান্সারের প্রবনতা ক্রমশই বাড়ছে। সেই তালিকায় এখন কলকাতার নামও আছে।  

আরও পড়ুন, শীতকালে চোখ ভাল রাখতে কেমন সানগ্লাস কেনা উচিত, জেনে নিন


মূলত ছেলেদের ব্রেস্ট  ক্যান্সারের ঝুঁকির কারণ , বিআরসিএ জিন মিউটেশন, ক্লিনফেল্টার সিনড্রোম, টেস্টিকুলার ডিজঅর্ডার, পরিবারে কারও ব্রেস্ট  ক্যান্সার থাকলে এর সম্ভাবনা বেড়ে যায়। অ্যালকোহল, তামাক সেবন, শারীরিক পরিশ্রম না করা, উচ্চমাত্রার ইস্ট্রোজেন হরমোন নিঃসৃত হলে স্তন  ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়। পুরুষদের মেমারি গ্ল্য়াল্ডে অল্প পরিমাণ  কিছু নিষ্কৃয় স্তন কোষ থাকে। এই কোষগুলির অনিয়ন্ত্রিত বৃদ্ধির ফলে পুরুষদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার দেখা দেয়। তবে চিকিৎসা পদ্ধতীতে নারী ও পুরুষের মধ্যে বিশেষ কোনও পার্থক্য় নেই। যদিও ছেলেদের ক্যান্সার অনেক অ্যাডভান্স স্টেজে গিয়ে ধরা পড়ে। তাই বিপদ অনেক বেশি।  

আরও পড়ুন, নতুন বছর মানেই নিউ ইয়ার রেজোলিউশন, রইল বিশেষ তালিকা

বর্তমানে স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার ক্ষেত্রে পুরুষেরও একটা ঝুঁকি রয়েছে। যদি স্তনের কোনও ধরনের পরিবর্তন দেখা দিতে শুরু করে তবে অবশ্যই নারী-পুরুষ নির্বিশেষে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া দরকার। স্তন  ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে পুরুষের হার মাত্র ১ শতাংশ। নারীর মতো পুরুষেরও বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্তন  ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়তে থাকে। তাই অবশ্য়ই সে বিষয়ে খেয়াল রাখা উচিত। যদিও স্তন  ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে পুরুষের হার কম হলেও ভারতে দিন দিন ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত পুরুষের সংখ্যা বাড়ছে।