শুভ দীপাবলির আনন্দে মেতে উঠেছে আট থেকে অষ্টাদশী। প্রতিবছর এই দিনটার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকি আমরা সবাই। চারিদিকে আলোর রোশনাইয়ে সেজে উঠেছে গোটা এলাকা। এর মধ্যে চলতে থাকে উপহার দেওয়া নেওয়া। তবে এবারের দীপাবলিটা একটু অন্যভাবে উদযাপন করাও যেতে পারে। ভাবছেন তো এ আবার কি?পরিবেশ বাঁচিয়ে উদযাপন করুন এবারের দীপাবলি এবং ভাইফোঁটা।

আরও পড়ুন- কয়েকটি সহজ উপায়ে সাজিয়ে ফেলুন আপনার বাড়ির অন্দরসজ্জা, রইল তার টিপস...

 দীপাবলির একদিন পরেই ভাইফোঁটা। সারা বছর ধরে এই বিশেষ দিনটার জন্য অপেক্ষায় বসে থাকে ভাই-বোনেরা। সারা বছরের খুনসুটিগুলি জমা হয়ে থাকে এই একটা মাত্র দিনের জন্য। ভাইয়ের মঙ্গল কামনায় সকাল থেকে উপোস করে  ভাইকে ফোঁটা দেওয়া, খাওয়া-দাওয়া , জমাটি আড্ডা এসব কিছু তো রয়েছেই, তারপরই আসে উপহারের পালা। সবার থেকে একটু স্পেশ্যাল উপহার দিতে কার না ভাল লাগে, তাই কাছের মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য বেছে নিন 'ইকো-ফ্রেন্ডলি' উপহার।

আরও পড়ুন-কালীপুজো মানে বাঙালির মনে এই আবেগগুলি জড়িয়ে থাকবেই...

পরিবেশ বান্ধব উপহার হিসেবে যে জিনিসটার কথা সবার প্রথমে মাথায় আসে সেটি হল চারাগাছ। সুন্দর একটি টবে ভাই বা বোনের পছন্দমতো একটি গাছ উপহার দিন। এতে বাড়ির অন্দরে  থাকল সবুজের ছোঁয়া আবার উপহারটিও হল পরিবেশ বান্ধব।

বাজারে এক ধরনের পেন্সিল পাওয়া যাচ্ছে। যেগুলি মূলত রিসাইকেল করা খবরের কাগজ দিয়ে তৈরি, এবং যার মূল আকর্ষণ হল পেন্সিলের পিছনে থাকবে গাছের বীজ। পেন্সিলের পিছনটা খুলে বীজগুলি মাটিতে পুতে দিলে এক সপ্তাহের মধ্যে বেরিয়ে আসবে গাছের চারা। বাচ্চারা তো ভীষণ খুশি হবে এই উপহার পেয়ে তার উপর তাদের মধ্যে তৈরি হবে পরিবেশ সচেতনতা।

কাগজের তৈরি যে কোনও জিনিসও অনায়াসে গিফট করতে পারেন। খবরের কাগজ রিসাইকেল করে সুন্দর সুন্দর উপহার পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। রিসাইকেলড কাগজ থেকে সুন্দর কোস্টারের সেট বেশ নজর কাড়ে। হাতে তৈরি এরকম একটা কোস্টারের সেট অনায়াসেই গিফট দিতে পারেন আপনারপ্রিয়জনকে। রিসাইকেলড করা কাগজ দিয়ে সুন্দর সুন্দর নোটবুকও বাজারে পাওয়া যায়। এগুলিও গিফট আইটেম হিসেবে খুবই জনপ্রিয়।

বেত, বাঁশ, মাটির তৈরি অর্থাৎ টেরাকোটার যে কোনও জিনিস দিতে পারেন । এখন হাতে তৈরি পাটের গয়না, জাঙ্ক জুয়েলারি হাল ফ্যাশনে ইন। সেগুলিও উপহার হিসেব একদম পারফেক্ট। যা ছোট, বড় প্রত্যেকের নজর কাড়বে। তবে উপহার যা-ই দেবেন না কেন তা যেন প্লাস্টিক বর্জিত হয়। সেদিকে বিশেষ করে খেয়াল রাখতে হবে।