বর্তমানে দিনে দিনে অ্যারোমাথেরাপিতে  জনপ্রিয় হচ্ছে এসেনশিয়াল অয়েলের। দিনে দিনে এর চাহিদা ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে এই এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করার আগে এটা জেনে রাখা দরকার যে এই তেলগুলি শুধুমাত্র বাড়িতেই ব্যবহারের জন্য। এই ধরনের তেল বা এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করে কখনই সূর্যের আলোতে বা রোদে যাওয়া উচিৎ নয়। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে রূপচর্চার পাশাপাশি নেগেটিভ মনোভাব দূর করতেও দারুন কাজে দেয় এসেনশিয়াল অয়েল। জেনে নেওয়া যাক, কোন তেল কী ভাবে কাজ করে।

আরও পড়ুন- পা ফাটার সমস্যা রয়েছে, মরশুম বদলের আগেই যত্ন নিন পায়ের

লবঙ্গের তেল দাঁতে ব্যাথায় খুব কাজে দেয়, এটি আমাদের সকলেরই জানা। প্রাচীনকালে যে কোনও ইনফেকশনেও এই তেল ব্যবহার করা হয়। একইভাবে ব্যাথার পাশাপাশি  নেগেটিভ মনোভাব দূর করে মনকে শান্ত রাখতেও দারুন কাজে দেয় এই তেল।

আরও পড়ুন- কিডনি সমস্যা থাকলে এড়িয়ে চলুন এই খাবারগুলি, হতে পারে স্টোনের মত সমস্যাও

এসেনশিয়াল ওয়েলগুলির মধ্যে অতি পরিচিত হল ল্যাভেন্ডার অয়েল। এর চাহিদা সারা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই তেল নেগেটিভ মনোভাব দূর করে মনকে যেমন শান্ত রাখে। একইসঙ্গে অবসাদ কমাতেও দারুন কাজ দেয় এই তেল।

আরও পড়ুন- বাচ্চার শরীর সুস্থ রাখার জন্য জল কতটা প্রয়োজনীয়, জানতে হলে ক্লিক করুন

আমাদের দেশে যেমন লবঙ্গ তেল অত্যন্ত জনপ্রিয়। সে রকমভাবেই বিদেশে ব্যপকভাবে ব্যবহৃত হয় জাম্বুরার তেল। আমাদের দেশেও বিভিন্ন আধ্যাত্মিক কাজে এই তেল ব্যাবহার করা হয় প্রাচীণকাল থেকেই। অবসাদ কমাতেও দারুন কাজ দেয় এই তেল।

এই তেলের সুগন্ধ রাগ, দুঃখের মতো নেগেটিভ আবেগকে কমিয়ে মন শান্ত রাখতে সাহায্য করে। এই তেল শ্যাম্পু, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, এমনকী মাউথওয়াশ হিসেবেও ব্যবহৃত হয়।