মেয়ে হোক বা ছেলে নিজেদের সৌন্দর্য নিয়ে প্রত্যেকেই সচেতন। কেউ কখনওই চায় না তাদের সৌন্দর্যের কোনও ক্ষতি হোক। কিন্তু আমরা এমন অনেক কাজ করি যা আমাদের অজান্তে অনেক ক্ষতি করছে। শুধু সৌন্দর্য বললে কিছুটা ভুল হবে, সামান্য ভুলের জন্য আমরা স্বাস্থ্যেরও ক্ষতি করি। আর ছোট্ট একটা ভুলের জন্য বাকি জীবনটাই আমাদেরকেই ভুগতে হয়। অন্যমনস্কতার জন্য আমরা নিজেদের অজান্তে কীভাবে বিপদ ডেকে আনি, যা আমাদের ত্বকেরও স্বাস্থ্যের ক্ষতি করে । 

আরও পড়ুন-নিউমোনিয়া এড়াতে শিশুকে কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন, জেনে নিন এই উপায়গুলি...

চুলের রং করতে গিয়ে অনেক সময় তা ত্বকের মধ্যে লেগে যায়। এতে কিন্তু ত্বকের খুবই ক্ষতি হয়।

অনেকেই চুল ঠিকমতো সেট করার জন্য হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করে থাকেন। এই স্প্রে-টি ব্যবহার করার সময় খুবই সাবধানতাবশত এটি করবেন। এবং এটি ব্যবহার করার সময় মুখে কোনও কাপড় দিয়ে ঢেক করবেন। এটি মুখে লাগলে ত্বক যেমন রুক্ষ হয়ে যায় এর পাশাপাশি ত্বকেরও ক্ষতি হয়।

ডালডা বা ঘি জাতীয় কোনও খাদ্যদ্রব্য কোনওভাবেই মুখে লাগাবেন না। এতে মুখের লোপকূপ বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

শ্যাম্পু করার সময় খেয়াল রাখবেন মুখে যেন না লাগে। শ্যাম্পু চুলের জন্য ভাল হলেও মুখের জন্য নয়। তাই শ্যাম্পু করার সময় সাবধানে শ্যাম্পু করুন।

মাথার চুলে হেয়ার সিরাম লাগানোর সময় খুবই সাবধানতার সঙ্গে এটিকে ব্যবহার করুন। মুখের মধ্যে এটি যেন কোনওভাবেই না লাগে । সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

আরও পড়ুন-চুল ওঠা থেকে ওজন কমানো, ম্যাজিকের মতো কাজ করে ত্রিফলা...

মেয়োনিজ যেমন খেতেও ভাল লাগে, তেমনি চুলের জন্য ভাল। কিন্তু মুখের জন্য খুবই ক্ষতিকর এই মেয়োনিজ। অনেকেই ফেসপ্যাকের জন্য এটিকে ব্যবহার করতে বলেন। কিন্তু এটি একদম ভাল নয়।

শীতকালে যে সমস্যাটি সবথেকে বেশি হয়, সেটি হল  অনেকেই ভাবেন বডিলোশন গায়ে মেখে সেটিকে মুখেও মেখে নেওয়া যায়। এটি একদমই ভুল ধারণা। মুখের স্কিন আর বডি স্কিন কখনওই এক হয় না। তাই এই কাজটি ভুলেও করবেন না। এতে ত্বকের ক্ষতি হয়।