শাহাজান আলি, পশ্চিম মেদিনীপুর-করোনা আবহের মধ্যে বড়সড় আন্দোলনের হুমকি দিলেন ঠিকাদার সংস্থা কর্তৃক হাসপাতালের কর্মীরা। তাঁদের সরকারি কর্মী হিসেবে স্বীকৃতির দাবি জানালেন তাঁরা। তা যদি না হয় তাহলে জেলাশাসকের কাছে স্বেচ্ছামৃত্যির আবেদন জানালেন তাঁরা।

আরও পড়ুন-নির্দিষ্ট গাইডলাইনের ভিত্তিতে চালু হবে লোকাল ট্রেন, তৈরি হবে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। কিছু দিন আগে ডেবরা হাসপাতালের ঠিকাদার সংস্থার কর্মীরাও তাঁদের সরকারি কর্মী হিসেবে স্বীকৃতি দাবি জানিয়ে জেলাশাসকের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এই অবস্থায় এবার শালবনী হাসপাতালের কর্মীরা স্বেচ্ছামৃত্যির আবেদন জানিয়ে জেলাশাসকদের দ্বারস্থ হলেন। জেলাশাসককে দেওয়া আবেদন পত্রে তাঁরা জানিয়েছেন, তাঁরা যেন নিজেদের জীবন নিজেরাই শেষ করতে পারে। সেই অনুমতি জেলাশাসক যেন তাঁদের দেন।

আরও পড়ুন-বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্কের মর্মান্তিক পরিণতি, প্রতিবেশীর ছেলে হাত-পা বেঁধে খুন, গ্রেফতার সিআরপিএফ

প্রসঙ্গত, শালবনী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল বর্তমানে লেভেল ফোর করোনা হাসপাতাল হিসেবে কাজ করে চলেছে। আগে ওই হাসপাতালটি জিন্দাল গোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রণাধীনে ছিল। কিন্তু বর্তমানে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের নিয়ন্ত্রণাধীনে এই হাসপাতালটি। হস্তান্তর প্রক্রিয়া  সম্পন্ন হলেও ঠিকাদার সংস্থার দ্বারা নিয়োগ করা ১৩৬জন স্বাস্থ্যকর্মীর অবস্থা বদলায়নি। এখনও তাঁরা ঠিকাদার সংস্থার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হন। এই অবস্থায় তাঁরা সরকারি কর্মীদের মতো বেতন ও ভাতা সহ নানান সুযোগ সুবিধা দাবি করেছেন। তা না হলে জেলাশাসকের কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা।