সামনেই দুর্গা পুজো। সারাক্ষণই মনটা যেন বলছে খাই খাই। পুজোতে খাওয়া দাওয়া হবে না সে কি আর বাঙালি পরিবারে হয়! আর মাছ রান্নায় বাঙালির জুরি মেলা ভার। প্রায় কম বেশি  প্রত্যেকেই খায় তেলাপিয়া মাছ। তার ওপর মাছটি যদি একটু অন্যরকম ভাবে রান্না করা যায় তাহলে তো কোনো কথাই নেই। একটু স্বাদ বদলের জন্য খেয়ে দেখা যেতেই পারে ভুনা তেলাপিয়া। মাছে-ভাতে বাঙালির জন্য রইল এই মাছের একটি অসাধারণ রেসিপি। 

উপকরণ

তেলাপিয়া মাছ ৫০০ – ৭০০ গ্রাম (৫টা তেলাপিয়া)
টমেটো ২ টি
পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
পেঁয়াজ বাটা ২ চামচ
সরষের তেল পরিমাণমতো
তেজপাতা, দারচিনি ২টো করে
রসুন বাটা ১ চা চামচ
আদা বাটা ২ চা চামচ
জিরা গুঁড়ো ১ চা চামচ
হলুদ গুঁড়ো ১ চা চামচ
শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো স্বাদ মতো
কাঁচালঙ্কা ফালি করে কাটা ৫/৬ টি
ধনে পাতা আন্দাজ মতো
জল এক থেকে দু’কাপ
নুন স্বাদ মতো

পদ্ধতি

প্রথমে মাছগুলোকে ভালোভাবে ধুয়ে নুন হলুদ মাখিয়ে নিন। এরপর নুন হলুদ মাখানো মাছগুলোকে মাঝারি আঁচে ভেজে তুলে রাখুন। খুব কড়া করে ভাজবেন না। এবার টমেটোর গায়ে হালকা করে তেল মাখিয়ে সেটিকে পুড়িয়ে চামড়া ছাড়িয়ে নিয়ে আধ কাপ জল দিয়ে চটকে পেস্ট বানিয়ে নেবেন। এরপর কড়াইতে তেল দিয়ে কাটা পেয়াজ সোনালি করে ভেজে বেরেস্তা বানিয়ে নিন। এবং  তাতে গরম মশলার ফোড়ন দিয়ে বাটা ও গুঁড়ো মশলা (জিরাগুঁড়ো ছাড়া) দিয়ে সামান্য জল দিন ও ৪/৫ মিনিট মাঝারি আঁচে কষিয়ে নিন। এবার টমেটো পোড়া পেস্টটি দিয়ে আরও ২ মিনিট কষিয়ে বেরেস্তা, ১ কাপ জল, নুন ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে ঢেকে দিন। ৫/৬ মিনিট পর ভাজা মাছ দিয়ে নেড়েচেড়ে তাঁর ওপর অল্প জিরা গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন এবং সেটিকে ঢেকে আরও ৪/৫ মিনিট অল্প আঁচে রান্না করুন ।

শেষে ওপরে ধনেপাতা ছড়িয়ে নামিয়ে নিন। এবং গরম গরম পরিবেশন করুন ভুনা তেলাপিয়া।