দেশের সর্বোচ্চ ক্রীড়া সম্মান রাজীব খেলরত্ন। প্রত্যেক ক্রীড়াবিদই  চান রাজীব খেলরত্নের সম্মানে সম্মানিত হতে। অক্লান্ত পরিশ্রমের পাশাপাশি ক্রীড়া বিশ্বে দেশের নাম উজ্জ্বল করা এই পুরষ্কার পাওয়ার অন্যতম মাপকাঠি। মহিলা শুটার অঞ্জুম মুদগিলের রাজীব খেলরত্নের জন্য প্রস্তাব করল  ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া। ১০মিটার এয়ার রাইফেল বিভাগে বর্তমানে বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ে চতুর্থস্থানে রয়েছেন অঞ্জুম। আগেই অর্জুন সম্মানে সম্মানিত চন্ডীগড়ের এই মহিলা শুটারই চলতি বছর রাজীব খেলরত্নের যোগ্য দাবিদার বলে জানানো হয়েছে ফেডারেশনের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুনঃনস্টালজিক সচিন,শেয়ার করলেন প্রিয় বন্ধুর বাড়িতে কাটানো মুহূর্তের ছবি

২০০৮ সালে নিজের কেরিয়ার শুরু করেন বর্তমানে ২৬ বছরের অঞ্জুম মুদগিল। দেশের যেই দুজন শুটার টোকিও অলিম্পিক্সের জন্য ছাড়পত্র অর্জন করেছে তাদের মধ্যে অন্যতম অঞ্জুম। অভিষেকের বছরেই কোরিয়াতে অনুষ্ঠিত আইএসএসএফ ওয়ার্ল্ড কাপে রুপো জিতে প্রচারের আলোয় এসেছিলেন চন্ডীগড়ের শুটার। গতবছর দিব্যাংশ সিং পানওয়ারের সঙ্গে জুটি বেঁধে ১০মিটার এয়ার রাইফেলের মিক্সড টিম ইভেন্টে অঞ্জুম সোনা জেতেন মিউনিখ ও বেজিংয়ে। গতবছরই ডিসেম্বরে ভোপালে অনুষ্ঠিত জাতীয় শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে ৫০মিটার রাইফেল থ্রি পজিশনে খেতাব ছিনিয়ে নেন তিনি।  রীজ খেলরত্নের জন্য মনোনীত হয়ে খুশি ভারতীয় শুটার। আগামী দিনে দেশের নাম আরও উজ্জ্বল করাই স্বপ্ন তার। আপাতত তার পাখির চোখ টোকিও অলিম্পিক।

আরও পড়ুনঃস্লেজিং সামলানোর ক্ষেত্রে কে এগিয়ে সচিন না বিরাট, আক্রমের জবাব

আরও পড়ুনঃ'তিনি অন্যরকম গেম খেলতেন', গুরু গ্রেগকে আক্রমণ ভাজ্জি ও যুবির

অঞ্জুম মুদগিল ছাড়াও, দ্রোণাচার্য পুরস্কারের জন্য অভিজ্ঞ শুটার যশপাল রানার নাম প্রস্তাব করা হয়েছে এনআরএআই’য়ের তরফ থেকে।  এশিয়ান গেমসে চারবারের সোনাজয়ী, অর্জুন এবং পদ্মশ্রী প্রাপক প্রাক্তন শুটার যশপাল রানাই দ্রোণাচার্য সম্মানের যোগ্য দাবিদার বলে জানিয়েছে ফেডারেশন।  এছাড়াও অর্জুন পুরস্কারের জন্য এশিয়াডে পদকজয়ী দুই তরুণ শুটার সৌরভ চৌধুরি এবং অভিষেক বর্মার নাম প্রস্তাব করার পথে জাতীয় রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন।  ১০মিটার এয়ার পিস্তল র‍্যাংকিংয়ে বর্তমানে তৃতীয় ও চতুর্থস্থানে রয়েছেন দুই তরুণ শুটার। উল্লেখ্য, ২০১৮ জাকার্তা এশিয়ান গেমসে যথাক্রমে সোনা ও ব্রোঞ্জ জয় দিয়ে উত্থান শুরু হয়েছিল সৌরভ এবং অভিষেকের। অর্জুন পুরষ্কারের জন্য সম্প্রতি ভারতী ফুটবলার সন্দেশ ঝিঙ্গান ও বালা দেবীর নামও প্রস্তাব  করেছে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। পাশাপাষি ক্রিকেটে জশপ্রিত বুমরা ও শিখর ধওয়ানের নাম ভাবনায় রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের।