করোনা বিশ্বে ফের দুঃসংবাদ। প্রায় ৬ মাস হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর প্রয়াত হলেন রিও অলিম্পিকে সোনা জয়ী ব্যাডমিন্টন তারকা ক্যারোলিনা মারিনের বাবা। ফ্রেবুয়ারি মাস থেকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন  গঞ্জালো মারিন পেরেজ। জানা গিয়েছে ভয়াবহ দুর্ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিলেন গঞ্জালো। সেই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেননি ক্যারোলিনা মারিনের বৃদ্ধ বাবা।  সেই থেকেই তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। রবিবার ভোরে মৃত্যু হয় তাঁর। 

আরও পড়ুনঃচ্যাম্পিয়নস লিগে যোগ্যতা অর্জন করল ইপিএলের ৪টি দল,জেনে নিন তাদের খুঁটিনাটি

বাবার মৃত্যুতে স্ববাবতই ভেঙে পরেছেন ক্যারোলিনা মারিন। স্প্যানিশ ব্যাডমিন্টন সংস্থার তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে মারিনের বাবার মৃত্যুর খবর জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে স্প্যানিশ ব্যাডমিন্টন সংস্থা জানায়,'ক্যারোলিনা মারিনের বাবা গঞ্জালো মারিন পেরেজের মৃত্যুতে এফইএসবিএ  দুঃখ প্রকাশ করছে। গত ফেব্রুয়ারিতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ার পর থেকে লড়াই চালাচ্ছিলেন গঞ্জালো। শেষ পর্যন্ত ধাক্কা সামলে ওঠা সম্ভব হয়নি তাঁর পক্ষে। ২৬ জুলাই রবিবার ভোরে মৃত্যু হয় তাঁর। কঠিন সময়ে স্প্যানিশ ব্যাডমিন্টনমহল ক্যারোলিনা ও তাঁর পরিবারের পাশে রয়েছে। ক্যারোলিনায় পরিবারের প্রতি সমবেদনা'।

আরও পড়ুনঃদেশের অধিনায়ক ছিলেন, বর্তমানে অভাবের তাড়নায় একটি চাকরির জন্য ঘুরছেন দরজায় দরজায়

আরও পড়ুনঃবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে মেয়াদ শেষ সৌরভের, এবার সুপ্রিম কোর্ট ঠিক করবে 'মহারাজের' ভাগ্য

করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দিন লকডাউন  চলেছে স্পেনে। যার কারণে অনুশীলন শুরু করতে পারেননি ক্যারোলিনা। লকডাউনের পর গত মাসেই মাদ্রিদে ট্রেনিং শুরু করেন মারিন। রিওর গোল্ড মেডেল জয়ী তারকা টোকিওতেও ধরে রাখতে চান অলিম্পিক চ্যাম্পিয়নের খেতাব। তাছাড়া আগামী বছর নিজের দেশে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে নিজের হারানো বিশ্বখেতাবও পুনরুদ্ধার করতে চান মারিন। কিন্তু আকস্মিক বাবার মৃত্যুতে তার প্রস্ততি ধাক্কা খেলই বলেই মনে করছেন সকলে। মারিনের বাবার মৃত্যুতে শুধু স্পেন নয়, শোক প্রকাশ করেছেন গোটা ব্য়াডমিন্টন বিশ্ব। রিও অলিম্পিকের সোনা জয়ী শাটলারের পাশে রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন সকলে।