করোনা মহামারীর কারণে একবছরের জন্য পিছিয়ে গিয়েছে অলিম্পিক। যার ফলে হতাশ হয়ে পড়েছেন অনেক অ্যাথলিট। বিশেষ করে যাদের এবছরই ছিল শেষ অলিম্পিক। অপরদিকে করোনার কারণে অলিম্পিক পিছিয়ে যাওয়ায় অলিম্পিকে যাওয়ার ক্ষীণ আশা ছিল বাংলার দুই শুটার মেহুলি ঘোষ ও আয়ূশী পোদ্দারের। সেইভাবে নিজেদের তৈরিও করছিলেন দুই শুটার। দিন রাত এ করে করছিলেন কঠোর পরিশ্রম। কিন্তু মনে হচ্ছে সেই স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল মেহুলি ঘোষ ও আয়ূশী পোদ্দারের। ভারতীয় শুটিং সস্থা সূত্রে যা খবর বাংলার দুই শুটারের এবার অলিম্পিকে যাওয়া হচ্ছে না।

আরও পড়ুনঃপ্রকাশ্য রাস্তায় দুষ্কৃতীরা গুলি করে খুন করল টটেনহ্যাম তারকার ভাইকে

ভারতীয় শুটিং সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে,২০২১ টোকিও অলিম্পিক্সের জন্য দল প্রায় বেছেই ফেলেছে। যে দলে নেই মেহুলি ও আয়ূশী। সপ্তাহ দু’য়েক আগে শুটিং ফেডারেশনের পক্ষ থেকে প্রতি ইভেন্টে চার জন করে প্রতিযোগী নিয়ে ‘কোর গ্রুপ’ তৈরি হয়েছিল। সেই কোর গ্রুপে ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে মেহুলি বা ৫০মিটার রাইফেল থ্রি পোজিশনসে আয়ুষির নাম রাখা হয়নি। তবে অলিম্পিক্সের চূড়ান্ত দল নিয়ে কিছুই জানানো হয়নি। তবে মেহুলি ও আয়ূশীর প্রশসা করেছেন ভারতের জাতীয় রাইফেল শুটিং কোচ দীপালি দেশপাণ্ডে। ২০২৪ অলিম্পিকের জন্য তাদের তৈরি করা হবে বলেও জানানো হয়েছে শুটিং সংস্থার তরফে।

আরও পড়ুনঃলা লিগা জয় করতে রিয়ালের প্রয়োজন আর মাত্র ২ পয়েন্ট

আরও পড়ুনঃম্যান ইউয়ের ড্রয়ে নতুন সমীকরণ ইপিএলে

এই খবর জানার পর কিছুটা হতাশ হলেও একাবারে ভেঙে পড়েননি মেহুলি ঘোষ ও আয়ূশী পোদ্দার। তাদের কোচরাও তাদের নিয়ে খবুই আশাবাদী। এবার অলিম্পিকে যাওয়ার স্বপ্ন পূরণ না হওয়া নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বাংলার দুই শুটার। আয়ূশী পোদ্দার জানিয়েছেন,'প্রথমে একটু খারাপ লেগেছিল ঠিকই, কিন্তু এখন শুধু ট্রেনিংয়ে ফোকাস করছি। যাতে কখনও হঠাৎ কোনও সুযোগ এলে কাজে লাগাতে পারি।' মেহুলির নজরও শুধুই ট্রেনিংয়ে। কমনওয়েলথ পদকজয়ী শুটার বলছিলেন,'জানি না এই বছরে আর কী হবে। আমার চোখ এখন ২০২২ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ, এশিয়ান গেমস আর কমনওয়েলথ গেমসে।' দুই বঙ্গ তনয়া এবারের মতো অলিম্পিকে যেতে না পারার আক্ষেপ থাকলেও, ২০২৪ তারা বাংলা তথা দেশের নাম যে উজ্জ্বল করবে সেবিষয়ে আশাবাদী তাদের সমর্থক ও অনুরাগীরা।