মমতার বিরদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মালব্যর। রাজ্যে সরকারি চিকিৎসক নিয়োগে অস্বচ্ছতা নিয়ে  চিকিৎসকদের ফোরামে  দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক  অমিত মালব্য। একদিকে যখন ২০২১ এর ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশ হবে হবে করছে, এমনই সময়ে তৃণমূল সুপ্রিমোর বিরুদ্ধে বড়সড় দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন  মালব্য।

আরও পড়ুন, 'দিদির নজর শুধুই ভাইপো কল্যাণে', সাগর থেকে মমতার সভায় 'জয় শ্রীরাম' ধ্বনি পাঠালেন শাহ 

 

 

শুক্রবার বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক অমিত মালব্য টুইট করে জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের চিকিৎসক নিয়োগে যথেষ্ট অস্বচ্ছতা রয়েছে। 'স্বজন পোষণ' নিয়ে 'অ্যাসোসিয়েশন অফ ডব্লিউবি হেলথ সার্ভিস ডক্টরস'দের ফোরামে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের বিরুদ্ধে বড়সড় দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন অমিত মালব্য। এর সঙ্গে মালব্য টেনে আনেন আম্ফান প্রসঙ্গও। তিনি বলেনচিকিৎসক নিয়োগই হোক কিংবা আম্ফান ত্রাণই হোক,  গোটা ১০ বছরে মমতার সরকারের প্রধান চিহ্নই 'দুর্নীতি'।

 

আরও পড়ুন, জনগণের কথা ভাবলেই হবে জয়, পদ্মের মুখ হবেন কি, খোলসা করলেন লক্ষীরতন শুক্লা 

 

 


প্রসঙ্গত, রাজ্যে সরকারি  চিকিৎসক নিয়োগে স্বজনপোষণের অভিযোগের পাশাপাশি  আম্ফান ত্রাণ নিয়ে মমতার বিরুদ্ধে দুর্নীতি অভিযোগ শুধু মালব্যই করেননি। একুশের নির্বাচনের দোরগড়ায় দাঁড়িয়ে তৃণমূলকে হারাতে এটাই বিজেপি প্রধান অস্ত্র। বারবার চাল চুরি-ত্রিপল চুরি-আম্ফানে কেন্দ্রের পাঠানো অর্থ চুরি এই প্রসঙ্গ উঠে এসেছে মোদী-অমিত শাহ-কৈলাশ বিদয়বর্গীয়-শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্য়ে। আর এবার ভোটের আরও কাছে এসে একদিকে যেমন একের পর এক নেতা-মন্ত্রী-বিধায়ক বিয়োগে দিশেহারা-ভগ্নপ্রায় তৃণমূল, ঠিক সেইসময়ই আরও এক ধাপ এগিয়ে মমতার সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন মালব্য।