হলদিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক ভাষণ জুড়ে নিশানায় থাকল রাজ্য সরকার। শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে আগাগোড়া তুলোধনা করেন মোদী। করোনা-আমপান বিপর্যয়ে রাজ্য প্রশাসনে দুর্নীতি ইস্যুতে জোরদার সওয়াল করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উঠে এল কৃষক সম্মান নিধি যোজনায় রাজ্য সরকার গ্রহণ করেনি। সেকারণে রাজ্যের কৃষকরা কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে বঞ্চিত হয়েছে বলে দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-'মা-মাটি-মানুষের সরকারের জন্য টাকা পায়নি কৃষকরা', মমতাকে তোপ মোদীর

রাজ্য সরকারকে নিশানা করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ''এত বড় প্রাকৃতিক বিপর্যয় হল, ঘূর্ণিঝড়ের সময় অনেক টাকা দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। সেই টাকার জন্য আদালতের কাছে যেতে হয়। করোনার সময়ও বিপদ কম ছিল না। অনেক মানুষের রোজগালর তলে গিয়েছিল। বাংলার মানুষের জন্য বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের পাঠানো সেই রেশন সঠিকভাবে দরিদ্র মানুষের কাছে পৌঁছায়নি। বাংলার মানুষ তাই মমতাদিকে শিক্ষা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তা বুঝে নিয়েই কেন্দ্রকে চিঠি দেয় রাজ্য সরকার। কেন্দ্রের টাকায় রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ হয়েছে''।

আরও পড়ুন-'একুশে বিদায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন মমতা', হলদিয়ায় হাজির না থাকায় মুখ্যমন্ত্রীকে খোঁচা অমিতের
পাশাপাশি, প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ''বাংলায় বিজেপির সরকার গঠন হলে, কেন্দ্রের সমস্ত প্রকল্প দ্রুত বাংলায় কার্যকর হবে। দেশের অন্যান্য কৃষকদের মচতো সমস্ত সুযোগ সুবিধা পাবেন কৃষকরা। বাংলায় ৭৩ লক্ষ শৌচাগার তৈরির জন্য আর্থিক সহায়তা করেছে কেন্দ্র। বাংলার উন্নয়নের জন্য এখন ডাবল ইঞ্জিন সরকারেকর প্রয়োজন। বিজেপি বাংলায় ক্ষমতায় এলেই বাংলার আর্থিক উন্নয়নের গতি আরও তরাণ্বিত হবে''।