দলের জন্য নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেল। তারপরেও অতিরিক্ত ৪ মিনিট বলতে দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হল দীনেশ ত্রিবেদীকে। কেন দেওয়া হল এই অতিরিক্ত সময়? প্রশ্ন তুলে রাজ্যসভায় দীনেশ ত্রিবেদীর ইস্তফা নিয়ে তদন্ত দাবি জানাল তৃণমূল কংগ্রেস। শুধু তাই নয়, তদন্তের দাবি জানিয়ে চেয়ারম্যানকে চিঠি দিলেন তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়।

আরও পড়ুন-' তৃণমূল পরিবারে কেউ অপমানিত, লাঞ্ছিত, অত্যাচারিত থাকে-সেটা আমি', কেন আচমকা এমন বললেন কুণাল

রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে ইস্তফা দিয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। সেই দিনই সুখেন্দুশেখর রায় জানিয়েছিলেন, ''বাজেটের উপর আলোচনার জন্য তৃণমূলের দুজনের নাম নির্ধারিত ছিল। তাঁদের বলার সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও, কী করে অতিরিক্ত সময় পেলেন দীনেশ ত্রিবেদী''। প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূল সাংসদ। তা নিয়ে রাজ্য়সভার চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন তিনি। সেখানে তিনি অভিযোগ করেছেন, ''দুপুর ১.৩৫ থেকে বাজেট বিতর্কে জবাবি ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের। তার মধ্যেই হটাৎ ৪ মিনিট বলার সুযোগ পেয়ে যান দীনেশ ত্রিবেদী। কীভাবে তিনি বলার অনুমতি পেলেন''? 

আরও পড়ুন-বাবু মাস্টারের পর এবার এক সংসদের উপর হামলা, জাতীয় সড়ক অবরোধ করল BJP কর্মীরা

রাজ্যসভার ইতিহাসে এই ঘটনা নজিরবিহীন বলে দাবি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যসভায় নিয়ম না মেনেই কেন সুযোগ দেওয়া হল দীনেশ ত্রিবেদীকে? এই নিয়ে রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের কাছে তদন্ত দাবি জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ইস্তফা দেওয়ার সময়ই হঠাৎই বলতে শুরু করেন দীনেশ ত্রিবেদী। বাজেট সম্পর্কিত কোনও কিছুই মন্তব্য় না করে নিজের দলের বিরুদ্ধে বলতে শুরু করেছিলেন তিনি। এই ঘটনার তীব্র বিরোধিতা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।