Asianet News BanglaAsianet News Bangla

অনুব্রত মণ্ডলের পরে কে? কেষ্টর চেয়ার ফাঁকা রেখেই আলোচনা বীরভূম জেলা তৃণমূলের

বর্তমানে  গরু পাচারকাণ্ডে সিবিআই হেফাজতে অনুব্রত। অথচ জেলার দণ্ডমুণ্ডের কর্তা অনুপস্থিত জেলা। এই অবস্থায় পরবর্তী পরিস্থিতি কী রণনীতি নেওয়া হবে তা ঠিক করলেই জেলা তৃণমূল কংগ্রেস বৈঠকে বসেছিলেন। কিন্তু এই বৈঠক ফাঁকা রাখা হয়েছিল অনুব্রত মণ্ডলের চেয়ার ফাঁকা রাখা হয়েছিল।

Anubrata Mondals chair was kept vacant in the emergency meeting of Birbhum District TMC bsm
Author
Kolkata, First Published Aug 14, 2022, 6:14 PM IST

বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের বেতাজ বাদশা ছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। না বিধায়ক, না সাংসদ- কিন্তু জেলা জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের একচ্ছত্র অধিপতি ছিলেন তিনি। কিন্তু বর্তমানে  গরু পাচারকাণ্ডে সিবিআই হেফাজতে অনুব্রত। অথচ জেলার দণ্ডমুণ্ডের কর্তা অনুপস্থিত জেলা। এই অবস্থায় পরবর্তী পরিস্থিতি কী রণনীতি নেওয়া হবে তা ঠিক করলেই জেলা তৃণমূল কংগ্রেস বৈঠকে বসেছিলেন। কিন্তু এই বৈঠক ফাঁকা রাখা হয়েছিল অনুব্রত মণ্ডলের চেয়ার ফাঁকা রাখা হয়েছিল। 

রবিবার বৈঠকে ছিলেন বোলপুর সাংসদ অসিত মাল, রামপুরহাট বিধায়ক, ডেপুটি স্পিকার আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, সিউড়ির বিধায়ক তথা বীরভূম জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরী, বোলপুর বিধায়ক, ক্ষুদ্র, কুটির শিল্প ও বস্ত্রমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা, লাভপুরের বিধায়ক অভিজিৎ সিংহ, ময়ূরেশ্বরের বিধায়ক অভিজিৎ সিনহা, হাঁসন কেন্দ্রের বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায় এবং বর্ধমানের কেতুগ্রামের বিধায়ক শেখ সাহেনাওয়াজ। দলের জেলা সহ সভাপতি তথা দলের মুখপত্র মলয় মুখোপাধ্যায় বৈঠক পরিচালনা করেন। 

সূত্রের খবর আলোচনার মূল বিষয় ছিল অনুব্রতর অনুপস্থিতিতে কে দায়িত্ব নেবে জেলার। কিন্তু দলের নেতারা এই বিষয়ে বাইরে মুখ খুলতে চাননি। বৈঠকে শেষে মলয়বাবু বলেন আগামিকাল স্বাধীনতার ৭৫ বর্ষ পূর্তি। সেই উপলক্ষে জেলার সর্বত্র জাতীয় পতাকা উত্তলনের পাশাপাশি দলীয় পতাকা তোলা হবে। সেই সঙ্গে সমস্ত হাসপাতালে রোগীদের হাতে ফল তুলে দেওয়া হবে। এছাড়া স্থানীয় স্তরে নিজেদের মতো করে অনুষ্ঠান করে দিনটিকে পালন করা হবে। ১৬ আগস্ট খেলা হবে দিবস পালন করা হবে। তবে বৈঠকে দলের সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে কি আলোচনা হয়েছে আপনাদের সামনে বলব না”।

অর্থাৎ অনুব্রতর অনুপস্থিতিতে বীরভূমের দায়িত্ব কে নেবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। কিন্তু এখনও দলের শীর্ষ নেতৃত্ব অনুব্রত মণ্ডলকে নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। বসেনি শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির বৈঠক। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির মাত্র পাঁচ দিনের মাথায় শৃঙ্খলা কমিটির বৈঠক পার্থকে সাসপেন্ড করেছিল। কিন্তু অনুব্রত ইস্যুতে এখনও পর্যন্ত দলের শীর্ষ নেতৃত্ব মুখে কুপুল এঁটে রয়েছেন। শুধুমাত্র দিন কয়েক আগে সাংবাদি সম্মেলনে তৃণমূল নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানিয়েছেন দলের নীতি অনুযায়ী দল কোনও দুর্নীতিতে প্রশ্রয় দেবে না। সেক্ষেত্র অনুব্রত ইস্যুতেও পার্থর মত দায় ঝেড়ে ফেলে পারে তৃণমূল। কিন্তু সে বিষয় এখনও পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। অন্যদিকে পঞ্চায়েত নির্বাচন আসন্ন। বীরভূম ছাড়াও বর্ধমানের বিস্তীর্ণ এলাকা হাতের তালুর মতই চেনেন অনুব্রত। তাই তাঁকে ছাড়া সংগঠনের দায়িত্ব কার হাতে যেতে পারে তা নিয়েই আলোচনা শুরু হয়েছে বলা যেতে পারে। 

তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রের খবর বৃহস্পতিবার অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারির পর এই প্রথম জেলায় বৈঠকে বসল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে কেষ্টর অনুগামীরা সোমবার অর্থাৎ ১৫ অগাস্ট অনুব্রত মণ্ডলের মঙ্গল কামনায় বীরভূমে তাঁর নিজের বাড়িতেই একটি পুজোর আয়োজন করেছে। সেখানে অনুব্রত শুভকামনায় আর অশুভ শক্তির প্রভাব কাটাতে নাকি  যজ্ঞও হবে। তেমনই আয়োজন চলছে জোর কদমে। বীরভূমের তৃণমূল কংগ্রেসের সূত্রের খবর দলের প্রিয় নেতার মঙ্গলকামনায় এই যজ্ঞের আয়োজন করছে তারা।  জাঁকজমক করেই হবে পুরো পুজো।

বিবাহ বিচ্ছেদ মামলার শুনানির পর ভরা আদালতে স্ত্রীর গলায় ছুরির কোপ, গ্রেফতার 'খুনি' স্বামী

অমিতাভ বচ্চনের কাছে ১০ টাকা পাওনা রয়েছে, KBCর মঞ্চে এসে টাকা ফেরত চাইলেন অধ্যাপক

পাকিস্তানের জনসভায় জয়শঙ্করের ভিডিও ক্লিপ চালালেন ইমরান খান, কারণ জানলে অবাক হবেন

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios