জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ার পর পাকিস্তানের সংঘর্ষ বিরোধী চুক্তি লঙ্ঘনের পরিমাণ জেন দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুক্রবারও একইভাবে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার নৌসেরা সেক্টরের কাছে সংঘর্ষ বিরোধী চুক্তি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান। আর এর জেরে প্রাণ হারান ভারতীয় সেনা জওয়ান জলপাইগুড়ির রাজীব থাপা। 

৩৪ বছর বয়সী রাজীব থাপার বাড়ি জলপাইগুড়ি জেলার মেচপাড়ায়। দেশের জন্য তাঁর এই আত্মত্যাগকে সম্মান জানানো হল তাঁর শেষ যাত্রায়। রবিবার সকাল আটটা নাগাদ বেঙ্গডুবি মিলিটারি স্টেশনে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানান ভারতীয় সেনারা। 

আরও পড়ুন - নিয়ন্ত্রণরেখায় গোলাবর্ষণ পাক সেনার, শহিদ হলেন জলপাইগুড়ির রাজীব থাপা

 

জানা গিয়েছে, গত ২৩ অগাস্ট শুক্রবার ভোরে রাজীব থাপা নৌসেরা সেক্টরের কলসিয়া গ্রামে টহল দিচ্ছিলেন।  আচমকাই গোলাবর্ষণ শুরু করে পাকিস্তানি সেনারা। সেই গুলিতেই বিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন রাজীব থাপা। তারপর তাঁকে সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাঁকে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। বাড়িতে রয়েছে তাঁর স্ত্রী খুশবু মঙ্গর থাপা।

আরও পড়ুন - সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে মোদী, ভূষিত হলেন সেদেশের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মানে

আরও পড়ুন-উপকূলীয় সীমান্তে বিএসএফ-এর জালে দুটি পাক নৌকো, জারি তল্লাশি অভিযান
তবে সীমান্তে পাকিস্তানের যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনার পর ভারতীয় সেনার তরফেও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পাকিস্তানি সেনা পোস্টগুলির ওপর ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি চালানো হয়েছে। প্রতিরক্ষার এক মুখপাত্রের কথায়, রাজীব একজন অত্যন্ত সাহসী এবং নিষ্ঠাবান সেনা হিসাবেই পরিচিত ছিলেন। দেশের কাজ করতে গিয়ে তাঁর যে এই বিরাট আত্মত্যাগ, তা জাতির কাছে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।