শুভজিৎ পুতুতুণ্ড, বারাসাত:  শবদাহ করতে গিয়েও রেহাই নেই!  দু'দিনের রাজ্য সফর সেরে অমিত শাহ ফেরার পরই আক্রান্ত হলেন বিজেপি-এর যুব মোর্চার দুই সদস্য। শ্মশানে তাঁদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপালো দুষ্কৃতীরা। আক্রান্তেরা ভর্তি কল্যাণীর জেএনএম হাসপাতালে। অভিযোগ তির তৃণমূলের দিকে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগণার কাঁচরাপাড়ায়। সোশ্যাল মিডিয়া ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বিজেপি-এর যুব মোর্চার সহ-সভাপতি শঙকুদেব পাণ্ডা। 

আরও পড়ুন: 'আমি বোমা মারিনি-মেরেছে সুজিত বসুর লোক', সল্টলেক-বোমাবাজিতে ধৃত ২ বিজেপি কর্মী

ঘটনাটি ঠিক কী? কাঁচরাপাড়ার বাসিন্দা সুকান্ত গঙ্গোপাধ্যায় ও শান্তনু গঙ্গোপাধ্যায়। সম্পর্কে তাঁরা দুই ভাই এবং এলাকায় দু'জনেই বিজেপি সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত। সুকান্ত ও শান্তনু যুব মোর্চার সদস্য। শুক্রবার গভীর রাতে বন্ধুর বাবা শেষকৃত্যের জন্য যখন শ্মশানে গিয়েছিলেন, তখন তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁদের উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। আক্রান্তদের দাবি, ২০ থেকে ২৫ জন আচমকাই চড়াও হয়ে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে। এমনকী, ধারালো অস্ত্র গিয়ে আঘাতও করা হয়। তবে থানায় এখনও পর্যন্ত  কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। বিজেপি-এর যুব মোর্চার দুই সদস্যের উপর হামলা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূলের স্থানীয় নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: ৩৯ বছর পর বন্ধুকে ফিরে পাওয়া, ছোটবেলা ফেরাল 'হ্য়াম রেডিও'

এদিকে এই ঘটনার পর টুইট করে বিজেপি-এর যুব মোর্চার রাজ্য সহ-সভাপতি শঙকুদেব পাণ্ডা। ঘটনার তীব্র নিন্দার করে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নজরে আনার কথা জানিয়েছেন তিনি। বস্তুত, দু'দিনের সফরে রাজ্যে এসে রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে যথেষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করে গিয়েছেন অমিত শাহ। ঘটনাচক্রে তিনি চলে যাওয়ার পরেই কিন্তু ফের হামলা মুখে পড়লেন বিজেপি কর্মীরা।