সোনা-রূপো নয়,  বাজার থেকে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে নাজেহাল অবস্থা আম বাঙালির। দাম এতটাই বেড়ে দিয়েছে যে, এখন বিয়েতে নবদম্পতিকে পেঁয়াজের প্যাকেট উপহার দিচ্ছেন অনেকেই! মূল্যবৃদ্ধির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে কাঠগড়ায় তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  সোমবার খড়গপুরে এক জনসভায় তিনি বলেন, 'পেয়াঁজ কেন্দ্রীয় সরকারের সাবজেক্ট। রাজ্যকে ২০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ দেওয়ার কথা ছিল।  কিন্তু মাত্র ২০ মেট্রিক টন দিয়েছে। তারমধ্যেও আবার ১০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ পচা।' এদিন খড়গপুরে যাওয়ার আগে পেঁয়াজের দামবৃদ্ধির কারণ খতিয়ে দেখতে মুখ্যন্ত্রীর নিজে কলকাতার যদুবাজারে হাজির হন। কথা বলেন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে। 

পেঁয়াজ ঝাঁজে চোখে জল সাধারণ মানুষের। দেড়শো টাকার কমে রাজ্যের কোথাও খুচরো বাজারে পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে না। পরিস্থিতি যা, তাতে দাম ডবল সেঞ্চুরি পেরিয়ে গেলেও আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই।  কিন্তু পেঁয়াজের দাম বাড়ছে কেন? উত্তর জানা নেই কারওই। মূল্যবৃদ্ধি ঠেকাতে তৎপর রাজ্য সরকার। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সুফল বাংলার স্টল থেকে ন্যায্য দামে পেঁয়াজ বিক্রির ব্যবস্থা করেছে নবান্নে। কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি, বরং রাজ্য সরকারের স্টল থেকে লুট হয়ে গিয়েছে পেঁয়াজ। রবিবার সল্টলেকে খাদ্য ভবনে পেঁয়াজ নিয়ে জরুরি বৈঠক করেন মুখ্য কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদার। বৈঠক শেষে সোমবার অর্থাৎ আজ থেকে রেশন দোকান থেকেও পেঁয়াজ বিক্রির কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।  জানিয়েছেন, খুচরো বাজার থেকে ভুর্তকি মূল্যে পেঁয়াজ কিনবে রাজ্য সরকার। সেই পেঁয়াজ ৫৯ টাকা কেজি দরে রেশন দোকান থেকে বিক্রি করা হবে। পরিবার পিছু ১ কেজি পেঁয়াজ বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার। সোমবার সকালে নবান্ন যাওয়ার পথে ভবানীপুরের যদুবাজারে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বয়ং। পেঁয়াজ ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। দুপুরে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুরে এক জনসভায় পেঁয়াজ নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন: 'পেঁয়াজ কত করে কেজি', হঠাৎ দোকানে হাজির মমতা

গত বিধানসভা ভোটে খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্রে থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন বিজেপি-এর রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সদ্য সমাপ্ত উপনির্বাচনে এই আসন এসেছে তৃণমূলের দখলে। স্থানীয় বাসিন্দারের ধন্যবাদ জানাতে সোমবার দুপুরে কলকাতা থেকে হেলিকপ্টারে খড়গপুরে যান তৃণমূলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রেলশহরের বারণপোড়া ময়দানে জনসভা করেন। উদ্বোধন করেন বেশ কয়েকটি প্রকল্পে।