কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  ক'দিন আগে পর্যন্ত ছিল গ্রিনজোন, লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে উত্তর দিনাজপুরে। এবার আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন এক ব্যক্তির সংক্রমণ ধরা পড়ল। উদ্বেগ বাড়ছে প্রশাসনের। 

আরও পড়ুন: ফের করোনার থাবা পশ্চিম মেদিনীপুরে, এবার সংক্রমিত নার্স ও পুলিশকর্মী

জানা গিয়েছে, করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বাড়ি ইটাহারে। শনিবার জ্বর ও শ্বাসকষ্টের উপসর্গ নিয়ে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। রোগীকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা চলছিল। লালারস বা সোয়াব সংগ্রহ করে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। আক্রান্তকে পাঠিয়ে দেওয়া দেওয়া হয়েছে কোভিড হাসপাতালে। মেডিক্যাল কলেজের আইসোলেশন ওয়ার্ডটি স্যানিটাউজড করে দিয়েছে রায়গঞ্জ পুরসভা।  ইটাহারের ওই বাসিন্দা সংক্রমিত হলেন কী করে? স্বাস্থ্য দপ্তরের অনুমান, শ্রমিকের কাজ করতে গিয়ে বিহার বা অন্যকোথাও করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেছিলেন। তা থেকে ঘটেছে বিপত্তি।  যাঁরা ওই ব্যক্তির সংম্পর্শে এসেছিলেন, তাঁদের খোঁজ চলছে। পরিবারের লোকেদেরও লালারস বা সোয়াব পরীক্ষার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। 

আরও পড়ুন: বেসরকারি হাসপাতালে শ্বাসকষ্টে রোগীর মৃত্যু, আতঙ্ক ছড়াল শিলিগুড়িতে

আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত একসঙ্গে ৮ নার্স, টিটাগড়ের হাসপাতালকে বন্ধের নির্দেশ স্বাস্থ্য় দফতরের

উল্লেখ্য, গুজরাত থেকে ফেরার পর ইটাহারে এক পরিযায়ী শ্রমিকেরও করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। রায়গঞ্জে ব্লকের তিনজন ও হেমতাবাদে একজন ব্যক্তিও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৬।  এরইমধ্যে স্পেশাল ট্রেনে চেপে উত্তর দিনাজপুরে ফিরছেন কয়েক হাজার পরিযায়ী শ্রমিক। বিপদ আরও বাড়বে না তো? প্রমাদ গুনছেন অনেকেই।